বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের ক্যাপ্টেন গারো মেয়ে মারিয়া মান্দাকে নিয়ে ইউনিসেফ এর ডুকুমেন্টারি

 জেফিরাজ দোলন কুবি , 

বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের ক্যাপ্টেন গারো আদিবাসী মেয়ে মারিয়া মান্দা এখন নারী ফুটবলে বিশ্বব্যাপী রোল মডেল, জানিয়েছেন ইউনিসেফ এর প্রতিনিধি মানুয়েলা ডিসপয়েন্টস।

 

 

উনিসেফ এই ফুটবলারকে নিয়ে ডকুমেন্টরি তৈরী করছে বলে জানিয়েছেন মানুয়েলা। বিশ্বব্যাপী কিশোরীদেরকে ফুটবলে আগ্রহী করে তুলতেই উনিসেফের এই প্রয়াস বলে উল্লেখ করেছেন তিনি।

উনিসেফ এর আগে  বিশ্ব নন্দিত ফুটবলার লিওনেল মেসি, ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর মত মহাতারকাদের নিয়ে বিভিন্ন রকমের তথ্যচিত্র তৈরী করেছে। এগুলো তারাকাদেরকে সম্মানিত করেছে। তাঁদেরকে নিয়ে গেছে অনন্য উচ্চতায়!

 

এবার সেই একই উচ্চতায় পৌঁছে গেলেন বাংলাদেশী নারী ফুটবলার জাতীয় দলের ক্যাপ্টেন মারিয়া মান্দা!

 


মানুয়েলা জানান,  “উনিসেফ  বিশ্বব্যাপী শিশু কিশোদের নিয়ে কাজ করে। মারিয়া মান্দা একজন মডেল। তাঁকে নিয়ে আমরা কাজ করছি যেন এই তথ্যচিত্র দেখে সারা বিশ্বের কিশোরীরা হয়। তারা বিপথে না গিয়ে ফুটবলে আরও বেশি আকৃষ্ট হবে বলে আমাদের বিশ্বাস। মারিয়া মান্দা কিভাবে তাঁর ফুটবল প্রতিভা দিয়ে দারিদ্রতাকে জয় করেছে তাঁর  সেই গল্প আমরা বিশ্বময় সব কিশোরীদের কাছে পৌঁছে দিতে চাই।”

২০১১ সালে বঙ্গমাতা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় গোল্ড কাপের মধ্য দিয়ে ঢাকার মাঠে আসেন মারিয়া মান্দা। সেই থেকে শুরু করে, এখনও পর্যন্ত বাংলাদেশ নারী ফুটবলের জাতীয় দলের এক নির্ভরতার নাম মারিয়া।

অনুর্ধ ১৫ দল এবং জাতীয় দলের অধিনায়ক মারিয়াকে  নিয়ে তথ্যচিত্র উনিসেফের ওয়েবসাইট ও অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করা হবে বলে জানা গেছে।

বাফুফের টেকনিক্যাল ডিরেক্টর, পল স্মলি বলেন, বিষয়টি অত্যন্ত আনন্দের এবং গৌরবের। উনিসেফ বাংলাদেশের নারী ফুটবল দলের পাশে দাঁড়িয়েছে এটা গুরুত্বপূর্ন। আমাদের মারিয়াকে এখন সারা বিশ্বের মানুষ দেখবে, চিনবে এবং সাথে সাথে বাংলাদেশের নামও ছড়িয়ে পড়বে সারা বিশ্বময়!

সোশাল মিডিয়াতে এই খবর ভাইরাল হয়েছে। জাতি-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে শেয়ার দিচ্ছেন সকলেই।

Sharing is caring! Please share with friends & family if you find this website useful

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *