ফ্রিল্যান্সিংঃ রাজকীয় জীবন

সুবীর জেভিয়ার নকরেক



একজন ফ্রিল্যান্সার হচ্ছে বিভিন্ন পেশার মুক্ত পেশাজীবী মানুষ। সে শুধু ইন্টারনেটভিত্তিক কাজ করেই পেশাদার ফ্রিল্যান্সার বলে গণ্য হবে তা নয়।

Do you want to be a FREELANCER? Want to earn your LIVING from ANYWHERE IN THE WORLD?

If YES, just click here today and TAKE ACTION! We will help you start making money in just 7 Days!

একজন গ্রাফিক্স ডিজাইনার হতে পারে একজন ফ্রিল্যান্সার। তবে তাকে পরিচয় দেওয়ার সময় বলতে হবে ফ্রিল্যান্স গ্রাফিক্স ডিজাইনার। শুধু ফ্রিল্যান্সার বললে একটু ভুল ব্যাখ্যা দেওয়া হয়। অন্তত যখন নিজের পেশাকে বলা হয় তখন শুধু ফ্রিল্যান্সার না বলে বলতে পারেন, ফ্রিল্যান্স গ্রাফিক্স ডিজাইনার, ফ্রিল্যান্স ফটোগ্রাফার, ফ্রিল্যান্স ওয়েব ডিজাইনার/ডেভেলপার, ফ্রিল্যান্স রাইটার, ফ্রিল্যান্স জার্নালিস্ট, ফ্রিল্যান্স এপস ডেভেলপার, ফ্রিল্যান্স সিংগার ইত্যাদি।



অর্থাৎ যখন আমরা শুধু নিজেকে ফ্রিল্যান্সার হিসেবে পরিচয় দিই তখন কেউ প্রশ্ন করার স্কোপ পেয়ে যায় কিসের ফ্রিল্যান্সার! এক্ষেত্রে বিভিন্ন সেক্টরে নিজেরদের পরিচয় দেওয়ার সময় আপনি নিজে যে বিষয়ের উপর স্কিল সেট করে ফ্রিল্যান্স করে জীবিকা নির্বাহ করছেন কিংবা আপনার ক্যারিয়ারে উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত দেখিয়ে যাচ্ছেন, সেই প্রফেশনাল স্কিলটাকে জড়িয়ে বলতে পারেন। এক্ষেত্রে একজন ফটোগ্রাফার যদি কোন প্রতিষ্ঠানের আন্ডারে কাজ না করে বিভিন্ন সময় ভিন্ন ভিন্ন ক্লায়েন্টের বা প্রতিষ্ঠানের কাজ নিজের পছন্দ অনুযায়ী করেন, তাকে ফ্রিল্যান্স ফটোগ্রাফার বলতে পারি।



Welcome to our The Garos24 Amazon Associate Store! You can order as many products you want. Please click on any product and it will navigate you to our main store where you can find unlimited products to choose from. We appreciate your business with us. Please feel free to ask any questions on LIVE CHAT window option if you have any queries. You can also shoot an email at: thedailygaros24@gmail.com

Click on any Baby Product to find thousand of products that your Baby loves!


ফ্রিল্যান্সারঃ ফ্রিল্যান্সার হিসেবে নিজেদের পরিচয় দিতে অনেকে পূর্বে কুন্ঠাবোধ করতো। বিশেষত অনেকে যারা ঘরে বসে ইন্টারনেটে কাজ করতো তারা নিজদের আয় এর কথা জানাতে কিংবা নিজদের বিষয়ে বলতে দ্বিধাবোধ করতো দেখেছি। এর কারণ তারা নিজেদের পেশাগত জীবন নিয়েই সঠিক এবং সম্যক ধারণা লাভ করেনি কিংবা এখনো অনেকেই আছে যারা এই জ্ঞান নিয়ে ফ্রিল্যান্সিং জীবন শুরু করেনি।



ফ্রিল্যান্সাররা রাজার নীতি ফলো করে এবং রাজার মত জীবন যাপন করে।

স্বপ্নের শুরুটা সহজ হলেও স্বপ্নবাস্তবায়ন সবসময়ই কঠিন। এক্ষেত্রে প্রথমাবস্থায় দক্ষতা বৃদ্ধির সময় একজন ফ্রিল্যান্সার মানবেতর জীবন যাপন করতে পারে, তবে সময়ের সাথে সাথে তার দক্ষতা বৃদ্ধি পায় এবং দক্ষতা বৃদ্ধির সাথে সাথে সে লোকাল থেকে শুরু করে আন্তর্জাতিকভাবে নিজেকে অন্যের কাছে প্রকাশ করতে সমর্থ হয় এবং বিশ্বের কাছে তার সেবা পৌছে যায় এবং একসময় সে নিজেই ব্রান্ড হয়ে যায়।



ফ্রিল্যান্সাররা সৎ উপায়ে জীবন যাপন করে। এখানে অন্যের ক্ষতি করে কিংবা ঘুষ খেয়ে কিংবা ঠকবাজি করে কাজ করার কিংবা কাজ পাওয়ার উপায় নেই। টিকে থাকতে হলে অবশ্যই কোন না কোন বিষয়ে একদম দক্ষ হতে হয়। এই দক্ষতা কোনরকম চালিয়ে দেবার মত হলে অচিরেই ঝরে পড়তে হয়। কারণ সারাবিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে কাজ করতে গেলে অবশ্যই Survival of the Fittest নীতি পালন করতে হয়।

Click on any Beauty Product to find thousand of products that you love!


একজন সাধারণ চাকরীজীবী এবং রকস্টার ফ্রিল্যান্সারের পার্থক্যঃ
একজন সাধারণ চাকরীজীবী মুলত মুখস্থ বিদ্যা কিংবা সাধারণ পড়াশুনা শেষ করেই কোন চাকরীতে জয়েন করছে কিংবা মামা চাচার গুণে চাকরী করছে। এটা হতে পারে প্রাইভেট কিংবা সরকারী যে কোন চাকরী। অধিকংশ ক্ষেত্রেই যারা চাকরীরত তাদের মধ্যে দেখা যাবে তারা টেক্সট বই কিংবা বিভিন্ন গাইডবই মুখস্থ করেই বিভিন্ন প্রাতিষ্ঠানিক চাকরী করছেন।

Click on any Digital Camera to find thousands of Cameras that you love!


কিন্তু একজন ফ্রিল্যান্সার এর টিকে থাকার জন্য প্রফেশনাল স্কিলটা যেমন দরকার তেমনি কমুনিকেশন স্কিলটাও জরুরী। একজন উচ্চশিক্ষিত ফ্রিল্যান্সার চাইলেই কিন্তু সাধারণ চাকরীজীবী তার দৈনন্দিন কর্ম যেভাবে সম্পাদন করছে তা করতে পারে, কিন্তু ভিন্ন ভিন্ন সেক্টরে যে ভিন্নভিন্ন দক্ষতা দিয়ে সারাবিশ্বের মধ্য থেকে কাজ আদায় করে টিকে থাকতে হয়, সেটা চাকরীজীবীর কাছে সাগরে ভেসে যাওয়ার মত হবে যদিনা এক্সট্রা কোন দক্ষতা অর্জন করা যায়!

ফ্রিল্যান্সাররা কোনো প্রতিষ্ঠানের কতৃত্ব বা বাধাধরা নিয়মের ধার ধারেন না, তারা রাজার নীতি ফলো করেন, ইচ্ছে হলে কাজটা করবে ইচ্ছা না হলে করবেনা। অর্থাৎ একজন ফ্রিল্যান্সারের যদি কাজটা ভালো না লাগে তবে কারো সাধ্য নেই তাকে করানোর, কারণ সে স্বাধীনচেতা এবং স্বাধীনচেতা বলেই গধবাধা নিয়মে যে চাকরী সবাই গোলামীর মত খেঁটে যাচ্ছে, সে বিপরীত কিন্তু সঠিক পথে হাটছে। জীবনটা যেমন স্বাধীবভাবে বাচার স্বপ্ন দেখে সবাই, সেই স্বপ্নটা পূরণ করে ফ্রিল্যান্সাররাই।

Do you want to be a FREELANCER? Want to earn your LIVING from ANYWHERE IN THE WORLD? Do you want to join Nokrek-IT and build your career as a BRAND FREELANCER?

If YES, just click here today and TAKE ACTION! We will help you start making money in just 7 Days!

Click on any iPhone to find thousand of iPhones that you love!


ফ্রিল্যান্সারদের দুঃখ এবং আনন্দঃ

দক্ষতা অর্জন না করেই দেশের অনেক ফ্রিল্যান্সার আছে যারা কাজ ২ একটা করে অলস সময় কাটান। এক্ষেত্রে যে সময় কাজ কাজ করছে সে সময়টাই কিন্তু তার দক্ষতা বৃদ্ধিতে মনোযোগ দেওয়ার। আগেই বলেছি, কোনরকম কাজ চালিয়ে যাওয়ার মত দক্ষতা থাকলেই টিকে থাকা যায় না। অবশ্যই অত্যধিক দক্ষতাসম্পন্ন হয়েই বিশ্বের ময়দানে পা দিতে হবে। কেন না যেখানে একজন চাকরীজীবী দেশের ৪ লক্ষ এপ্লিকেন্টের মধ্যে প্রতিযোগিতা করছে কোনো দক্ষতা ছাড়াই শুধু মুখস্থ বিদ্যা দিয়েই, সেখানে একজন ফ্রিল্যান্সারকে আন্তর্জাতিকভাবে নিজেকে গড়ার জন্য অবশ্যই প্রফেশনাল স্কিল এবং কমুনিকেশন বা সফট স্কিলে দক্ষ হতে হবে। কারণ প্রতিযোগিতায় আর তখন শুধু নিজ দেশের ৭ লক্ষাধিক ফ্রিল্যান্সার নয়, প্রতিযোগিতায় থাকে ৭ কোটিরও অধিক ফ্রিল্যান্সার। এক্ষেত্রে নতুন ফ্রিল্যান্সাররা ঘাবড়ে যেতে পারে! তবে আশার কথা হচ্ছে, যদি প্রকৃত অর্থে দক্ষতা অর্জিত হয়েই থাকে, তবে তার সুমতি নিশ্চিত। সেটা হতে পারে অল্প সময়ের মধ্যে কিংবা কিছুটা দীর্ঘ সময়ের পর। তবে অবশ্যই ধৈর্য্যশীলতাকে এ সেক্টরে টিকে থাকার অন্যতম হাতিয়ার ভাবতে হবে।


সুখঃ ফ্রিল্যান্সারদের দুঃখটা মূলত প্রথমাবস্থায় থাকে। সেটা অনেকের শেখার ৬ মাস পর্যন্ত আবার অনেকের ১ বছর পর্যন্ত। বাকি জীবনটা ফ্রিল্যান্সারদের জন্য যেন সুখ আর সুখে ভরা। ইচ্ছা করলেই কারো নিয়মের তোয়াক্কা না করে পাহাড় বন কিংবা দেশ বিদেশে ঘুরেও নিজের ইচ্ছাস্বাধীনভাবে কাজ করতে পারছে। ইচ্ছা করলে এক সপ্তাহের আয় দিয়ে দু’মাস কাজ না করেও ঘুরে ফিরে নিশ্চিন্তে আনন্দ করতে পারছে।

Click on any book to find thousands of books that you love!

Click on any Hoodie to find thousand of hoodies that you love!


চাকরীর অপর নাম সকল চাকরীজীবীই যেমন চাকর বলে নিজেদেরই আখ্যায়িত করে থাকেন, এক্ষেত্রে ফ্রিল্যান্সাররা নিজেরা একটা সময় নিজেদেরকে নিজেই নিজের বস এবং নিজ সাম্রাজ্যের রাজা বলে আখ্যায়িত করতে পারেন।



ফ্রিল্যান্সারদের দৃষ্টিভংগিঃ
অনেক ফ্রিল্যান্সাররা অনেক সময় ব্যাংকে গিয়ে নিজেদের ফ্রিল্যান্সার বলে পরিচয় দেয়। আংশিক ভুল, আরে ভাই এখানে একজন ব্যাংকার সারাজীবন মুখস্থ বিদ্যায় বইয়ের অংক ঝাঝড়া করে অন্যের টাকা গুনার জন্য আপনার টাকা গুনার জন্য বসে আছে তাকে আপনি ফ্রিল্যান্সার বললে কি চিনে নেবে! তার পরিধি তো টাকা গুনার মাঝে সীমিত। আপনি বিশ্বের কাছ থেকে কিভাবে টাকা আনছেন বা কি পেশায় নিয়োজিত তা তার মাথাব্যাথা নয়। উন্নত দেশে দক্ষতার মাধ্যমে অর্থ উপার্জন অতি পুরাতন এবং বিশ্বনন্দিত পেশা হয়ে এলেও এদেশের অনেকেই এখনো এ ব্যাপারে সঠিক ধারণা রাখে না এবং ইন্টারনেটে উপার্জন যে সম্ভব তা তারা বিশ্বাস করতেও পারে না। এর কারণও আছে। পূর্বে বিভিন্ন ক্লিকবাজির মাধ্যমে অনেক টাকা পাওয়ার লোভ দেখিয়ে অনেক প্রতিষ্ঠান কিংবা এমএলএ কোম্পানি টাকা আত্নসাৎ করেছিল, জনগণেরই বা কি দোষ?

Click on any Art, Craft & Sewing Product to find thousand of products that you love!


বিগত কয়েকবছর যাবত সরকারী প্রচারণা কিংবা উদ্যোগ না নিলে আপনি এখনো নিজেকে ফ্রিল্যান্সার বলে পরিচয় দিতেন কিনা সন্দেহ। তবে এক্ষেত্রে সরকারী উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাতেই হয়।



বলছিলাম দৃষ্টিভংগির কথা, একজন ফ্রিল্যান্সার যখন ব্যাংকে কিংবা সমাজে নিজেকে ফ্রিল্যান্সার হিসেবে পরিচয় দিলে বুঝতে না পারলে নিজের আত্নসন্মানে বাধে তাহলে আপনি যে বিশ্বনন্দিত পেশায় নিযুক্ত আছেন সেটা বলুন, বলুন ফ্রিল্যান্স গ্রাফিক্স ডিজাইনার অথবা ফ্রিল্যান্স ওয়েব ডেভেলপার বা যার ক্ষেত্রে যেমন প্রযোজ্য। তারপরে যদি না বুঝতে পারে তার জন্য এই ডিজিটাল যুগে আপনার কষ্ট পাওয়ার চেয়ে মুচকি হেসে বলুন আপনি ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের  একটা একজন সহযোদ্ধা।

Click on any Appliance to find thousand of Appliances that you love!


ফ্রিল্যান্সারদের অবদানঃ
বস্তুত একজন ফ্রিল্যান্সার লোকাল কিংবা ইন্টারন্যাশনাল দু’টোর যেকোন একটিতে নিজেকে ব্যাপৃত রেখেও কাজ চালিয়ে যেতে পারেন এবং নিজ নিজ ক্ষেত্রে নিজেকে ফ্রিল্যান্সার দাবী করতে পারেন। এখানে ফোকাস করা হচ্ছে আন্তর্জাতিকভাবে কাজ করাটাকে।



ইন্টারনেটভিত্তিক কাজ করে আয় করা বিভিন্ন ফ্রিল্যান্সারদের কথা বলছি।
ফ্রিল্যান্সারদের অবদান নিয়ে দেশের দশের মানুষ বলতে গেলে জানেই না। বাংলাদেশের বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের মধ্যে পোশাক রপ্তানি দ্বিতীয় এবং সরকার ধরে নিয়েছে বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনে আইসিটি সেক্টর পোশাক রপ্তানিকে ছাড়িয়ে যাবে।

Click on any Product to find thousand of your Best Health & Personal Care products that you love!


এখন মূল কথায়ই হচ্ছে এই আইসিটি সেক্টরে যে বৈদেশিক মুদ্রা অর্জিত হচ্ছে এবং দেশ ও জনগণ যে সেবা পাচ্ছে এটা কিভাবে আসছে? এটা বাংলাদেশের বিভিন্ন প্রান্তে ঘরে বসে কাজ করা অক্লান্ত পরিশ্রম করা ৭ লক্ষাধিক ফ্রিল্যান্সারদের অবদান। একজন ফ্রিল্যান্সার দেশ ও জাতির গর্ব বলতে কি কষ্ট হচ্ছে? বুক ফুলিয়ে সবার বলা উচিত একজন ফ্রিল্যান্সার এবং আইটি উদ্যোগক্তা দেশ ও জাতির গর্ব। যারা বেশী ভালো কাজ করে তারা আমাদের সমাজে রীতিমত একটু পরেই মূল্যায়িত হয়। এক্ষেত্রে যারা ফ্রিল্যান্সার তারা ঘরে বসেই বিশ্বকে সেবা দিচ্ছে এবং দেশকে যে অর্থনৈতিক চাংগা করছে তা অবশ্যই ভালো এবং এ ভালোর স্বীকৃতি সরকার এখনো দিতে পারেনি। আগেই বলেছি বেশি ভালোর স্বীকৃতি একটু পরেই পাওয়া যায়।

Click on any Electronic Product to find thousand of products that you love!


জনগণের সত্য-ভ্রান্ত ধারণাঃ
জনগণ ভাবে ঘরে বসে ইন্টারনেটে যুবরা অমুক তমুক দেখে নষ্ট হচ্ছে। আবার অনেক জনগণ ভাবে ইন্টারনেটে কাজ করলেই লাখ লাখ ডলার।

ইন্টারনেটে অবশ্যই ভালো মন্দ বিবেচনার বিষয় আছে। তবে ইন্টারনেট যখন সারা বাংলাদেশের ৭ লক্ষাধিক মানুষের জীবন পরিবর্তনে ভূমিকা রাখছে। অন্যদেশের কথা নাইবা বলি। সেখানে এটা আশীর্বাদস্বরুপ। আর হ্যা ইন্টারনেটে অনেকেই লাখ লাখ ডলার ইনকাম করে ঠিকই কিন্তু এ ইনকামের জন্য নিজেকে সে পর্যায়ের যোগ্য করে গড়ে তুলতে হবে। সে যোগ্যতা ১ দিনে ১ বছরে হয়ে উঠে না। সে যোগ্যতা কারো ৫ বছরে কারোবা ১০ বছরেও হতে পারে। এমনো ধারণা যে, ইন্টারনেট কাজ করা মানেই রাত জেগে কাজ করা। এমন অনেক দক্ষ ফ্রিল্যান্সার আছেন যে তাদের মনেই নেই তারা শেষ কবে রাত জেগে কাজ করেছে। এখানে প্রথমাবস্থায় সুদক্ষ হওয়ার জন্য অবশ্যই একজনকে দিনরাত সমান করেই সুদক্ষ হতে হবে যদি সময় সংক্ষেপ থাকে। যদি তাড়াহুড়ো না থাকে তবে রাত জাগার দরকার প্রথমাবস্থায় থাকলেও আসতে ধীরে সেটা কমে আসবে এবং এক সময় রাতে কাজ আদায় করে দিনের বেলাতেই নিজের সময় অনুসারে কাজ ক্লায়েন্টকে জমা দিতে পাবেন। আর যদি রাতে কাজ করতেই হয় তবে তাতো আরো ভালো বিষয়। যখন চাকরীজীবীরা দিনে কাজের চাপে অতিষ্ট হয়ে যাচ্ছে সেক্ষেত্রে আপনি নিশ্চিন্তে ঘুরতে পারছেন এবং রাত হলে তাও আরামে ঘরে বসেই কাজ করছেন।

Click on any Laptop to find thousands of Laptops that you love!


এক্ষেত্রে বিশ্বের অন্যতম ধনী ব্যক্তি ওয়ারেন বাফেট এর কথা বলা-ই যায়ঃ

তুমি যদি অন্যের ঘুমানোর সময় একটু কষ্ট করে রাত জেগে কাজই না করলে তবে ত তোমাকে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত কাজ কাজ করেই মরতে হবে। জীবনটাকে উপভোগ করতে হয়। আর উপভোগের আর এক নাম ফ্রিল্যান্সিং।



কোন সাংঘর্ষিক কথা পেয়ে থাকলে দুঃখিত। তবে বস্তুতপক্ষ্যে সবাই রাজার মত জীবনই গড়তে চায়, সবাই এমন জীবনই চায় যেখানে কারো কতৃত্ব থাকবে না, যেখানে কারো হুকুম জারী থাকবে না, যেখানে থাকবে অফুরন্ত স্বাধীনতা, সাথে নিজে বলতে পারবো, এই আমি স্বধীন এবং সুখী। আমি বলতে পারব, আমি বাংলাদেশ এবং পৃথিবীর মানুষের সেবা দেই।

 



দ্য গারোজ24 আমাজন এসোসিয়েট-এ আপনাকে স্বাগতম! আপনার পছন্দের যে কোন পণ্য কিনুন নির্ভরতার সাথে। প্রয়োজনে চ্যাট অপশনে সরাসরি কথা বলুন।

Do you want to start a Freelancing Career? Want to make money from anywhere in the world? Want to earn right from home? Make your living simply working ONLINE? Want to FIRE YOUR BOSS? Please click here for training!

Learn Selenium Webdriver with Java & Earn from Home Anywhere in the World from Babul Nokrek on Vimeo.

Learn Selenium Webdriver with Java & Earn from Home Anywhere in the World is LIFE CHANGING Course Designed, Developed & Instructed by Babul D’ Nokrek.

Babul D’ Nokrek is an IT Instructor at AccentTech (please visit http://www.accenttech.us) in the United States of America.

Please contact on Skype: meghruddur

Email: softwaretestengineer007@gmail.com

To enroll any course, please follow the link: https://www.fiverr.com/babulnokrek

Our Website: https://www.freelancingteacher.com
Our News Blog: https://www.thegaros24.com
Our Blog: https://www.softwaretestingtutor.com

 

Do you want to be a FREELANCER? Want to earn your LIVING from ANYWHERE IN THE WORLD?

If YES, just click here today and TAKE ACTION! We will help you start making money in just 7 Days!



 

 

 

 

Sharing is caring! Please share with friends & family if you find this website useful

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *