উপ-সচিব পদে পদোন্নতি পেলেন হেমন্ত হেনরী কুবি এবং ব্রেঞ্জন চাম্বুগং

 দ্য গারোজ ২৪ নিউজ ডেস্ক , 

 

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের উপ-সচিব পদে পদোন্নতি পেলেন হেমন্ত হেনরী কুবি এবং ব্রেঞ্জন চাম্বুগং। গতকাল সরকারী এক প্রজ্ঞাপণে তাঁদের এই পদোন্নতির কথা জানানো হয়েছে।



এই দুই গারো তরুণ সকলের কাছে খুব চৌকস, মেধাবী এবং সৎ কর্মকর্তা হিসেবে পরিচিত। তাঁদের পদোন্নতিতে গারো আদিবাসী সমাজে আনন্দের বন্যা বইছে। সোশ্যাল মিডিয়া ছেয়ে গেছে শুভেচ্ছা, শুভ কামনা আর অভিনন্দনে।

হেমন্ত হেনরী কুবি



হেমন্ত কুবি মধুপুর আবিমার সন্তান। তাঁর গ্রামের বাড়ি জলছত্র ধর্মপল্লীর জালাবাধা গ্রামে। তিনি কর্পোস খ্রীস্টি হাই স্কুল, সেন্ট নিকোলাস হাই স্কুল থেকে এস এস সি, নটর ডেম কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রাষ্ট্র বিজ্ঞানে স্নাতক এবং নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালোয় থেকে জন প্রশাসনে স্নাতকোত্তর করেছেন।  হেমন্ত বর্তমান পদে উন্নীত হওয়ার পূর্বে এ্যাসিল্যান্ড ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, সিংড়া উপজেলার উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবং জন প্রশাসন মন্ত্রণালয়ে সিনিয়র সহকারী সচিব পদে দায়িত্ব পালন করেছেন।

 

ব্যাক্তিগত জীবনে হেমন্ত কুবি ক্যাথী হ্যাভেন রুনা’র সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ। তাঁদের এক ছেলে এবং এক মেয়ে রয়েছে।

ব্রেঞ্জন চাম্বুগং



ব্রেঞ্জন ১৯৭৮ সালের ৬ জানুয়ারি নেত্রকোন জেলার দুর্গাপুরে জম্ম গ্রহণ করেন। তিনি বিরিশিরি পিসি নল মেমোরিয়াল হাই স্কুল থেকে এস এস সি, নটর ডেম কলেজ থেকে এইচ এস সি এবং ঢাকা বিশ্ব বিদ্যালয় থেকে বোটানি বিভাগ থেকে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর ডিগ্রী অর্জন করেন।

তিনি ২০০৫ সালের ২ জুলাই এ্যাসিস্ট্যান্ট কমিশনার এবং নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে যোগ দান করেন নওগাঁ জেলার ডিসি অফিসে। অতঃপর রাজশাহীর বাঘা উপজেলায়  এসি ল্যান্ড, পাবনা জেলার ডিসি অফিসে সিনিয়র এ্যাসিস্ট্যান্ট কমিশনার, নাটর জেলার বাগাতিপাড়া উপজেলায় উপজেলা নির্বাহী অফসার এবং সিরাজগঞ্জ জেলার সদর উপজেলার তে নির্বাহী অফিসার হিসেবে দক্ষতার সাথে দায়িত্ব পালন করে অনেক খ্যাতি অর্জন করেন।

ব্র্যাঞ্জন ব্যক্তিগত জীবনে পবিত্র প্যাত্রিশিয়া মান্দার সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ। তাঁদের এক ছেলে এবং এক মেয়ে রয়েছে।

এই প্রতিবেদন লেখা সময় পর্যন্ত তাঁদের পদায়ন কোথায় হবে তা জানা যায় নি।




Sharing is caring! Please share with friends & family if you find this website useful

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *