আদিবাসী মেয়ে শিক্ষার্থী লম্পট শিক্ষক ফরহাদ কর্তৃক যৌন হয়রানির শিকার


জেফিরাজ দোলন কুবি, শেরপুর থেকে



গতকাল বিকাল ৪ঃ০০টায় শেরপুরের শ্রীবর্দি উপজেলার বাবেলাকোনা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেনীর ৩ঃ০০জন আদিবাসী মেয়ে শিক্ষার্থী ঐ স্কলের লম্পট শিক্ষক ফরহাদ আলম কর্তৃক যৌন হয়রানির শিকার হয়েছে বলে জানা গেছে।

এই বিষয়টি স্থানীয় যুব সম্প্রদায় ও বাগাছাস শ্রীবর্দি শাখা প্রতিবাদ করতে গেলে একটি প্রভাবশালী মহল তা ধামাচাপা দেয়ার অপচেষ্টা করছে বলে জানা যায় ।



নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা যায়, গতকাল বাবেলাকোনা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম সাময়িক পরীক্ষার শেষ পর্যায়ে বিকাল আনুমানিক সাড়ে ৩ঃ০০ টার দিকে যখন ছাত্র-ছাত্রীদের সংখ্যা কমে আসলে সে সুযোগ নিয়ে বাবেলাকোনা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক, বিকৃত মস্তিষ্কের নরপশু ফরহাদ আলম ঐ ৩ আদিবাসী ছাত্রীকে যৌন হয়রানি করেন।



আক্রান্ত কোমলমতি ছাত্রীরা মানসিকভাবে ভীত এবং লজ্জিত হয়ে তাদের অভিভাবক বা অন্য কাউকে জানায়নি। কিন্তু তাদের সহপাঠী যারা ঘটনাটি দেখে ফেলেছিল তাদের আলোচনায় পরের দিন তা এলাকাবাসী জেনে ফেলে। বিষয়টি ঐ স্কুল সংলগ্ন বাবেলাকোনা আদিবাসী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা কর্নিয়া সাংমার কানে এলে তিনি ঐ ছাত্রীদের সাথে কথা বললে এই নেক্কারজনক জনক ঘটনাটি জানতে পেরে বাবেলাকোনা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এস এম সি সভাপতি পাস্টর ক্লেশ থিগীদিকে অবহিত করেন।

ঘটনার সত্যতা জানতে পেরে বাগাছাস শ্রীবর্দি শাখার সভাপতি জীবন সাংমা, স্থানীয় যুব সম্প্রদায় ও বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী ঐ শিক্ষক কে বিদ্যালয়ের একটি কক্ষে অবরুদ্ধ করে রাখেন এবং স্কুল কর্তৃপক্ষকে দোষী শিক্ষকের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণে অবিলম্বে পদক্ষেপ নেওয়ার দাবী জানান।



জানা গেছে স্থানীয় প্রভাবশালী মহল, ইউ পি সদস্য সিদ্দিক মেম্বারের নেতৃত্বে অবরুদ্ধ শিক্ষককে ছাড়িয়ে নেন এবং এ বিষয়ে কোনো কথা বললে দেখে নেওয়া হবে বলে হুমকি দেন। পাস্টার ক্লেষ বিষয়টি তৎক্ষনাৎ শ্রীবর্দি উপজেলা শিক্ষা অফিসার কে জানান এবং তিনি আগামী কাল সকাল সাড়ে ৯ঃ০০টায় ঘটনা তদন্তে আসবেন বলে জানা গেছে। আগামীকাল শ্রীবর্দি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাও ঘটনাস্থলে উপস্থিত থাকবেন বলে জানা গেছে ।



Sharing is caring! Please share with friends & family if you find this website useful

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *