New Home

মতামত

সংস্কৃতি

বাঁশি আর গানের বুলবুলঃ সায়ন মাংসাং একটি ভালোবাসার নাম

এক আজ সায়ন মাংসাং এর একটা ইন্টারিভিউ পড়ছিলাম The New Age পত্রিকায়। পড়তে পড়তে চোখ…

Read More
সংস্কৃতি

একটি মানবিক কাজে সহায়তার প্রয়োজনঃ স্ট্যাটাস অব দ্য ডে-০৩

জয় জাখারিয়াস ম্রং সম্মানিত সুধী, একটি মানবিক কাজে সহায়তার প্রয়োজন। আপনার, আমার একটি শেয়ারেই নিভর্র…

Read More
সংস্কৃতি

আজ বিশিষ্ট কবি জেমস জর্নেশ চিরান-এর ৫৯ তম জন্ম দিনঃ শুভ জন্মদিন কবি

আজ বিশিষ্ট কবি, লেখক ও গীতিকার জেমস জর্নেশ চিরান-এর জন্ম দিন। দ্য গারোজ ২৪ এর…

Read More
সংস্কৃতি

হালুয়াঘাটে মৃত্তিকা সংস্কৃতি কেন্দ্র’র প্রাণের টানে, পথে প্রান্তরে অনুষ্ঠিত

লিজা নকরেক, হালুয়াঘাট থেকে ফিরে, জাতিতাত্ত্বিক লোকায়ত জ্ঞান ও সংস্কৃতি পাঠকেন্দ্র-মৃত্তিকা’র সহযোগী সংগঠন মৃত্তিকা সংস্কৃতি…

Read More
সংস্কৃতি

The Real Beauty of The Garos: Their Culture and Tradition

[In 2007, when I was studying at Drexel University, USA, with a scholarship from US…

Read More
সংস্কৃতি

নিজের শিক্ষকের জন্য 'লাল গালিচা' ছেড়ে মাটির উপর দিয়ে হাটলেন প্রধানমন্ত্রী!

সুবীর জেভিয়ার নকরেক ও জেফিরাজ দোলন কুবি, ঢাকা থেকে নিজের শিক্ষকের প্রতি সীমাহীন সম্মান, ভালোবাসা…

Read More

Latest Post

নিউ ইয়র্কে গারো আদিবাসীদের বড়দিন উদযাপন

নিউ ইয়র্কে গারো আদিবাসীদের বড়দিন উদযাপন

দ্য গারোজ২৪, নিউ ইয়র্ক থেকে অনেক উৎসাহ, উদ্দীপনা এবং অনাড়ম্বর সামাজিক পরিবেশে নিউ ইয়র্কে অবস্থানরত গারো আদিবাসীরা বড়দিন উদযাপন করেছে। অনেক চার্চেই সকাল ৯টায় ছিল …

নিউক্যাসেল ইউনিভার্সিটি থেকে মিল্টন হাসনাত এর পদত্যাগ!

নিউক্যাসেল ইউনিভার্সিটি থেকে মিল্টন হাসনাত এর পদত্যাগ!

আন্তর্জাতিক প্রতিবেদক, নিউক্যাসেল ইউনিভার্সিটি থেকে তরুণ মেধাবী রাজনিতিক, কবি ও জাঁদরেল অধ্যাপক মিল্টন হাসনাত পদত্যাগ করেছেন! তাঁর বন্ধু ও ঘনিষ্ট মহল থেকে পদত্যাগের বিষয়টি নিশ্চিত …

ফিরে যেতে যেতেই

ফিরে যেতে যেতেই

বাবুল ডি’ নকরেক একদিন সবুজ-শ্যামলিমা, শাল-অরণ্যে যাব আবার। শৈশব-কৈশোরের দিনে ডাংগুলি, কানামাছি, লুকোচুরি খেলতে গিয়ে শিলক্রিং কাটার খামচিতে রক্ত ঝরিয়েছি যে বনে! চলে এসে যৌবনে, …

ফেইসবুকের খোলা স্ট্যাটাস

ফেইসবুকের খোলা স্ট্যাটাস

এক বোধ করি তখন ২০০১ বা ২০০২ সাল। আমি মধুপুর ডিগ্রী কলেজে অধ্যাপনা করি। কিছু অজানা বিষয় লিখব। আমার জীবন টা ফটোগ্রাফি কীভাবে উলট পালট …

ফ্রিল্যান্সিংঃ রাজকীয় জীবন

ফ্রিল্যান্সিংঃ রাজকীয় জীবন

সুবীর জেভিয়ার নকরেক একজন ফ্রিল্যান্সার হচ্ছে বিভিন্ন পেশার মুক্ত পেশাজীবী মানুষ। সে শুধু ইন্টারনেটভিত্তিক কাজ করেই পেশাদার ফ্রিল্যান্সার বলে গণ্য হবে তা নয়। Do you …

ফ্রীল্যান্সিং ক্যারিয়ার বদলে দেয় জীবন

ফ্রীল্যান্সিং ক্যারিয়ার বদলে দেয় জীবন

বাবুল ডি’ নকরেক কাছে এবং দূরের সকল বন্ধু এবং স্বজন, সবাইকে আসছে শুভ বড়দিন ও নববর্ষের শুভেচ্ছা। সবার জন্য নতুন বছর বয়ে আনুক অনাবিল সুখ, …


INFORMATION & TECHNOLOGY

নকরেক আইটি'র ময়মনসিংহ শহর শাখা উদ্বোধন

ওয়েব প্রোগ্রামিং এ বিশ্ব সেরা বিশ্ব বিদ্যালয়গুলোর সিলেবাস অনুসরণ করছে নকরেক আইটি জেফিরাজ দোলন কুবি, ময়মনসিংহ থেকে,  ২১ ডিসেম্বর নকরেক আইটি'র ময়মনসিংহ শহর শাখা অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে উদ্বোধন করেছেন জেমস মাংসাং এবং জুঁই ফিলোমিনা নকরেক। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জেমস মাংসাং এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জুঁই নকরেক এবং মুনমুন নকরেক। Nokrek IT উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি, বিশেষ অতিথিগণ নকরেক আইটি'র শিক্ষার্থীদের মাঝে সার্টিফিকেট এবং ক্রেস্ট তুলে দেন। উদ্বোধন শেষে প্রাক বড়দিন উদযাপন করা হয়। বড়দিনের নাচ আর গানে ময়মনসিংহ নকরেক আইটি ইন্সটিটিউট হয়ে উঠে এক আনন্দ নগরী!   নকরেক আইটি'র প্রাক্তন ছাত্রী, সফল ডিজাইনার এবং উদ্যোক্তা মুনমুন নকরেককে তাঁর ডিজাইন এবং ব্যবসায়ী উদ্যোগের মাধ্যমে বিশ্বের কাছে গারো সংস্কৃতিকে তুলে ধরার জন্য Entrepreneur of the Year এ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়। Babul D' Nokrek নকরেক আইটি'র প্রতিষ্ঠাতা সি,ই,ও সুবীর জেভিয়ার নকরেক জানিয়েছেন, নকরেক আইটি নতুন শাখা উদ্বোধন উপলক্ষে সীমিত সময়ের জন্য ৫০% স্কলারশীপ দিচ্ছে। নতুন বছরের ১ম সপ্তাহ থেকে নতুন ব্যাচের ক্লাশ শুরু হবে। তিনি জানিয়েছেন, নকরেক আইটি'র ছাত্র - ছাত্রী বিশ্বের যে কোন প্রান্ত থেকে ঘরে বসে অনলাইনেই ক্লাশ করতে পারবেন। ক্লাশ করার জন্য তাঁদের ক্যাম্পাসে যেতে হবে না। Nokrek বক্তব্য রাখছেন নকরেক আইটি'র সি, ই, ও সুবীর জেভিয়ার নকরেক তিনি আরও জানিয়েছেন, বিশ্ব মানের গ্রাফিক্স ডিজাইন, ওয়েব ডিজাইন, ওয়েব ডেভেলপমেন্ট, সফটয়্যার টেস্টিং, ইংলিশ কোর্স দিচ্ছে নকরেক আইটি। ওয়েব ডিজাইন, ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এবং ওয়েব প্রোগ্রামিং উইথ পাইথন এর কোর্সগুলো যুক্তরাষ্ট্র থেকে সরাসরি ক্লাশ দেওয়া হয়। বক্তব্য রাখছেন নকরেক আইটি'র মেন্টর এবং গাইড মুজাহিদুল ইসলাম নকরেক আইটি'র মেন্টর মুজাহিদুল ইসলাম জানালেন, আমরা লেইটেস্ট সফটয়্যার এবং প্রযুক্তি ব্যবহার করছি যা যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্ক কোড এন্ড ডিজাইন, এম আইটি, হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়, ইউনিভার্সিটি অব লন্ডন ব্যবহার করছে। বাংলাদেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো এখনও এই প্রযুক্তিগুলো ব্যবহার করছে না! এখানেই আমাদের বিশেষতঃ এবং এখানেই আমরা সেরা, বলতে পারেন অপ্রতিদ্বন্দ্বী। আমাদের ওয়েব প্রোগ্রামিং, ওয়েব ডেভেলপমেন্ট, ওয়েব ডিজাইন এর সিলেবাস গুলো তৈরী করেছেন বিশ্বে সেরা কোড এন্ড ডিজাইন স্কুল নিউ ইয়র্ক কোড এন্ড ডিজাইন এর সাবেক ছাত্র এবং আমাদের কন্সাল্ট্যান্ট এবং মেন্টর বাবুল ডি' নকরেক স্যার। আমাদের সাথে কন্সাল্ট্যান্ট, মেন্টর এবং গাইড হিসেবে রয়েছেন ২০১৮ সালে গুগল ডেভেলপার চ্যালেঞ্জ এ্যাওয়ার্ড প্রাপ্ত বাবুল ডি' নকরেক যার রয়েছে বাংলাদেশের ৩ টি কলেজে ১২ বছর অধ্যাপনার অভিজ্ঞতা এবং বহির্বিশ্বে ৪৯ টি দেশের ছাত্রদের ওয়েব ডিজাইন এন্ড ডেভেলপমেন্ট এর উপর মেন্টরিং এর বিশাল অভিজ্ঞতা। প্রোগ্রামিং এর কঠিন কঠিন বিষয়গুলো জলের মত সহজ করে উপস্থাপনা করার ক্ষেত্রে আমাদের বিকল্প নেই! সফল ফ্রিল্যান্সার পরিতোষ সিমসাং এর হাতে ক্রেস্ট তুলে দিচ্ছেন সফল উদ্যোক্তা ও ডিজাইনার মুনমুন নকরেক বাবুল ডি' নকরেক জানালেন, আমরা যুক্তরাষ্ট্রের এম আই টি, হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়, নিউ ইয়র্ক কোড + ডিজাইন একাডেমি ইউনিভার্সিটি অব লন্ডন, অস্ট্রেলিয়ার Adelaide University এর সিলেবাস স্টাডি করে আমাদের সিলেবাস তৈরী করেছি। এবং ডাটা ব্যবহারের ক্ষেত্রে সর্বশেষ তথ্য প্রবাহ নিশ্চিত করার চেষ্টা করেছি। ফলে আমাদের প্রশিক্ষণ আমাদের ছাত্রদের বহির্বিশ্বে প্রতিযোগিতায় টিকে থাকার নিশ্চয়তা দিবে যা বাংলাদেশের অন্য কোন প্রতিষ্ঠান এই মানের প্রশিক্ষণ সেবা দিতে পারবে না বলেই আমাদের বিশ্বাস। তিনি আরও বলেন, আমরা এম আই টি, হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়, নিউ ইয়র্ক কোড + ডিজাইন একাডেমি ইউনিভার্সিটি অব লন্ডন, অস্ট্রেলিয়ার Adelaide University'র একই মানে হয় তো পৌঁছাতে পারব, কিন্তু তাঁদের কাছাকাছিতে থাকতে চাই। আমাদের সিলেবাসগুলো তৈরির পূর্বে আমরা ঐ সকল বিশ্ববিদ্যালয়ের কোর্সগুলো প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত অডিট করেছি। তাঁদের সিলেবাসগুলো স্টাডি করে তারপর আমাদের দেশের জন্য উপযোগী করে সিলেবাস তৈরী করেছি। GIT, GITHUB, HTML5, CSS3, Javascript, Bootstrap, jQuery সাথে সাথে ওয়েব প্রোগ্রামিং উইথ পাইথন এন্ড জাভাস্ক্রিপ্ট ইন্টেগ্রেশান করা হয়েছে যা আমাদের কোর্স কে বিশ্বমানের করে তুলেছে। সি, ই, ও কে স্নেহ চুম্বনে সিক্ত করছেন বিশেষ অতিথি জুঁই নকরেক নকরেক আইটি ইতোমধ্যে বাংলাদেশ, ফ্রান্স, আমেরিকা, তাজাকিস্তানের ছাত্রদের প্রশিক্ষণ দিয়ে শতাধিক ফ্রিল্যান্সার, উদ্যোক্তা, মেন্টর, প্রশিক্ষক তৈরী করে প্রধান মন্ত্রী ঘোষিত ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে দেশে এবং দেশের বাইরে অবদান রাখছে। বক্তব্য রাখছেন বিশেষ অতিথি ডিজাইনার ও উদ্যোক্তা মুনমুন নকরেক নকরেক আইটি'র ছাত্রদের ডিজাইন সারা বিশ্বে বহুজাতিক কোম্পানিতে ব্যবহৃত হচ্ছে এবং ব্যাপকভাবে প্রসংশিত হয়েছে। বক্তব্য রাখছেন বিশেষ অতিথি জুঁই নকরেক 'আপসান' এর সফল ডিজাইনার এবং উদ্যোক্তা মুনমুন নকরেক জানিয়েছেন, আজকের এই মুনমুন নকরেকরে দেশের এবং দেশের বাইরের মানুষ চিনেন একজন সফল ডিজাইনার এবং উদ্যক্তা হিসেবে। আমার গ্রাম থেকে উঠে আসার পেছনের গল্প আমি সব জায়গায় বলি। বাবুল ডি' নকরেক এবং নকরেক আইটি'ই আমাকে ডিজাইনার এবং উদ্যোক্তা হিসেবে তৈরী করেছে। আমি তাঁদের কাছে কৃতজ্ঞ। উচ্ছসিত বিশেষ অতিথি গুঞ্জন প্রিন্ট এর উদ্যোক্তা গুঞ্জন নকরেক জানালেন তাঁর উদ্যোক্তা হওয়ার গল্প। দিনাজপুর থেকে অন্তরা সরেন, সিলেট থেকে সোহাগ নকরেক, টাঙ্গাইল থেকে পরিতোষ সিমসাং শোনালেন তাঁদের নকরেক আইটি থেকে প্রশিক্ষণ নিয়ে সফল হওয়ার গল্প। প্রধান অতিথি জেমস মাংসাং এর সাথে সি, ই, ও   বিশেষ অতিথি জুঁই নকরেক এর সাথে সি, ই, ও নকরেক আইটি বাংলাদেশের সীমানা ছাড়িয়ে দেশের বাইরেও দাপিয়ে চলছে। বাংলাদেশের ৬৪ টি জেলায় এর শাখা বিস্তৃত করার পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানা গেছে। ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে নকরেক আইটি ব্যাপক অবদান রাখুক - এটাই সকলের প্রত্যাশা।

এভাবে চলে যেতে নেই

বাবুল ডি' নকরেক ফেইসবুকে চোখ পড়ল কিছু স্ট্যাটাস! বন্ধু নিবিড়ের অবস্থা খুব খারাপ! সবাই দোয়া কর - এমন জাতীয় কিছু। বুঝার চেস্টা করছি কোন নিবিড়, কোথায় তার বাড়ি, সে কী করে। কারা তার বন্ধু মহল ইত্যাদি। অবশেষে, টিউশন রিছিল এবং জয় জাখারিয়াস ম্রং এর স্ট্যাটাস থেকে কিছুটা জানলাম। নিবিড় মৃঃ তাদের বন্ধু। নিবিড়ের ফেইসবুক প্রোফাইল থেকেই জানলাম, সে একজন ফুল স্টাক ওয়েব ডেভেলপার! মান্দিদের মধ্যে কতজন ফুল স্টাক ওয়েব ডেভেলপার আছে আমার জানা নেই। তবে হাতে গোনা যাবে এটা ধারণা করতে পারি। তরুণ ফুল স্টাক ওয়েব ডেভেলপারকে আমাদের নিজেদের স্বার্থেই বাচিয়ে রাখা জরুরী ভেবেই আমি নিজ উদ্যোগে তার খোঁজ নিতে শুরু করি। আমার স্ত্রী জানাল, নিবিড় তার ছাত্র ছিল স্কুল জীবনে! তার বন্ধু টিউশনকে ফেইসবুকে নক করে নিবিড় সম্পর্কে জানলাম। জানতে পারলাম আচিক ব্লুজ ব্যান্ড এর বিমল নকরেক এর সাথে তার ভাল সখ্যতা ছিল। বিমলকে নক করলাম। সে জানাল তারাও তার চিকিৎসার জন্য ফান্ড তুলবে। নকরেক আইটি'র সি ই ও সুবীর জেভিয়ার নকরেকেও নক করলাম। জানতে চাইলাম সে তাঁর প্রতিষ্ঠানের ছাত্র কি না। সুবীরই জানালেন, নিবিড় কোডারস ট্রাস্ট এর ছাত্র। এ ছাড়া ইন্সটিটিউট অব কম্পিউটার সাইন্স এন্ড ট্যাকনোলজির ছাত্র সে। আমি সুবীরকে বললাম, নিবিড়কে বাঁচাতে হবে। তার জন্য দ্রুত ফান্ড যেন ক্রিয়েট করা হয়। সুবীর একমত। ফাইবার মার্কেট প্ল্যাসে ফুল স্টাক ওয়েব ডেভেলপার হিসেবে নিবিড়ের সার্ভিসগুলো! সুবীরকে গুরুত্ব দিয়ে বলার কারণ হল, নকরেক আইটির ছাত্র-শিক্ষক যারা ফ্রীল্যান্সিং করেন তাঁরা ১০-২০ ডলার করে দিলেও অন্তত লাখ খানেক টাকা ১-২ দিনেই চলে আসবে। আর কারোর পক্ষে এত দ্রুত অনুদান তোলা সম্ভব নয় যা ফ্রীল্যান্সার কমিউনিটি করতে পারবে। আর নিবিড়ও যেহেতু ফ্রীল্যান্সিং শুরু করেছিলেন, সেদিক থেকে সে এই কমিউনিটির সাথে পরিচিত। এ যাবত ৪৯টি দেশের ছাত্র-ছাত্রীকে আমি ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েব ডিজাইন এবং ওয়েব ডেভেলপমেন্ট পড়িয়েছি! শত শত ফ্রীল্যান্সারকে সফট স্কিলস, ইংরেজি শিখিয়েছি। তাঁদের বেশীরভাগ ফ্রীল্যান্সার! তাঁদের প্রত্যেককে বলেছি, "আমাদের এই তরুণ ফ্রীল্যান্সারের পাশে দাঁড়াতে হবে!" সবাই তো এক বাক্যে রাজি ছিল! আমি নিবিড়কেও একটা এস এম এস পাঠালাম, সে যেন দুশ্চিন্তা না করে। আমরা সবাই তার পাশে আছি। বাংলাদেশে তখন গভীর রাত। নিবিড়ের বাবাকেও নক করি। তিনি হয় ত ফেইসবুকে অতটা একটিভ নন। নিবিড়কে লেখা আমার প্রথম এবং শেষ এস এম এস! আমি আমার খুব কাছের বন্ধুদের নক করলাম। সবাই তার চিকিৎসার জন্য অনুদান দিতে প্রস্তুত। এর মধ্যে তার বন্ধু জয় ম্রং এর স্ট্যাটাস থেকে জানলাম, তার সব বন্ধুরা ইতোমধ্যেই ফান্ড তোলার উদ্যোগ নিয়েছে। আমি আমাদের নিউজ এডিটরকে জয়ের স্ট্যাটাস টি স্ট্যাটাস 'অব দ্য ডে' বিভাগে ছেপে দিতে বললাম। ছাপা হল। আমি বন্ধুদের সাথে কথা বলছি তার চিকিৎসার ফান্ড নিয়ে। সবাইকে ৭২ ঘন্টার মধ্যে দেওয়ার জন্য অনুরোধ করলাম। নিবিড়কে ফোন দেওয়ার কথা ভাবছি। তার মায়ের ফোন নম্বরটাও জোগার করলাম। এর মধ্যে ঢাকা থেকে নিউজ চলে এল, "না ফেরার দেশে চলে গেলেন সম্ভাবনাময় সফটওয়্যার ডেভেলপার ও তরুণ সঙ্গীত শিল্পী নিবিড় মৃঃ!" চুপ করে বসে রইলাম কিছুক্ষণ। এর মধ্যে আমার স্ত্রী বলল, "নিবিড় চলে গেছে! ফেইসবুকে তার বন্ধুরা স্ট্যাটাস দিচ্ছে, নিবিড় আর নেই!" জয়ও জানাল, "মামা, নিবিড় আর নেই!" আমরা এই ত ঘন্টা খানেক আগেও কথা বলছিলাম, নিবিড়কে ঐ হাসপাতাল থেকে সড়াতে হবে! আমাদের ধারণা ছিল হাসপাতালের ডাক্তারগণ ইচ্ছে করে নিবিড়ের অবস্থা খারাপ করে তুলছে। সম্ভবত নিবিড়ের অবস্থা এতটা খারাপ নয়! ঘন্টায় ঘন্টায় নিবিড়ের বিভিন্ন রোগের ফিরিস্তি বেড়ে চলছিল! টাইফয়েড থেকে থ্যালাসামিয়া আবার কিডনি সমস্যা, কেমন যেন সুখকর মনে হচ্ছিল না। আমি নিবিড়কে কখনও দেখি নি। আমি তাকে চিনি না, জানি না। হয় ত কোনদিন দেখাও হয় নি! কিন্তু ফেইস বুকে তাকে নিয়ে স্ট্যাটাস দেখেই অস্থির হয়ে উঠলাম! মনে হল নিবিড় আমার পরিবারের ছেলে, আমাদের স্বজন। কেমন একটা টান অনুভব করলাম। কিন্তু ২৪ ঘন্টাও সময় পেলাম না। এর মধ্যেই নিবিড় চলে গেল। ২৪ বছরের একজন যুবক যখন আমাদের ছেড়ে চলে যায়, আমাদের মেনে নিতে কষ্ট হয়। মেনে নেওয়া যায় না। কিন্তু আমাদের সবাইকেই চলে যেতে হবে একদিন! এ সময় টা শুধু নিবিড়ের চলে যাবার পালা ছিল। ছোট ভাই বিলশন মৃঃ এর স্ট্যাটাস পড়ে জানলাম, নিবিড় মৃঃ আমাদের আত্মীয়! বিলশন মৃঃ আমার আপন মামার ছেলে। আর নিবিড় বিলশনের আদরের ভাগনে! নিবিড়, এভাবে যেতে নেই। তুমি তোমার বন্ধুদের কাজ করার সুযোগই দিলে না। আমি না হয় তোমার কেউ না! নিবিড়ের মত যেন আর কেউ চলে না যায়।

স্ট্যাটাস অব দ্য ডে - ০১

সুবীর জেভিয়ার নকরেক, সি ই ও, নকরেক আইটি, ঢাকা, বাংলাদেশ বিনিময়যোগ্য সেবার ক্ষেত্রে আসলে আমাদের কোনো গর্ব করা উচিত নয়। গর্ববোধ করা অপেক্ষা সফলতার ক্ষেত্রে কাজকে উপভোগ করা সমীচীন। আইটি খাতে সরকার একটা বিপ্লব সৃষ্টি করেছে। প্রত্যেকটি জেলায় জেলায় যুবাদের প্রশিক্ষন দিয়েছে। সরকারের উদ্যোগ সত্যিই ইতিবাচক ছিল। জোনায়েদ হোসেন পলক এম পি, এবং সজীব ওয়াজেদ জয় অবশ্যই এক্ষেত্রে প্রশংসার দাবি রাখে। বিভিন্ন সরকারি খাতে অনেক বিনিয়োগ করা হয়েছিল ঠিকই কিন্তু আসলে তৃণমূল পর্যায়ে যারা এটা পরিচালনা করে, তাদের চেটেপুটে খাওয়ার সুবাদে সরকারী অনেক কাজই সফলতার মুখ দেখে না। সরকারী প্রজেক্টে কাজ করার সুযোগ পেয়েও নিজে থেকে একক প্রচেষ্টায় যাত্রা শুরু হয়েছিল নকরেক আইটি ইন্সটিটিউট এর। বর্তমানে আমি পর্যালোচনা করে দেখি যা, অন্তত পক্ষ্যে ৬০% আদিবাসী সম্প্রদায়ে এটি পরিচিতি লাভ করেছে এর নিয়মানুবর্তিতা, একনিষ্ঠ সেবা, একাগ্রতা এবং প্রতিনিয়ত উন্নতির যাত্রায়। এই প্রতিষ্ঠানে ইতিমধ্যে সরকারী ম্যাজিস্ট্রেট, সরকারী নার্স, ইঞ্জিনিয়ার, মার্চেন্ডাইজার, ব্যাংকার, আইনজীবী, অসংখ্য এনজিও স্পেশালিস্ট, মাল্টিন্যাশনাল জব হোল্ডার, অসংখ্য ছাত্র, গৃহিনীদের আমরা ট্রেইনিং দিয়েছি দেশের মধ্যে কিংবা দেশের বাইরেও। সার্ভিস কিংবা টিচিং মেথড অথবা নিয়মানুবর্তিতা এবং কথা দিয়ে কথা রাখার ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীদেরর মূল্যায়ন অনুযায়ী তাদের দৃষ্টিতে নকরেক আইটি'র নিরবচ্ছিন্ন সেবা অতুলনীয়। একজন সাধারণ শিক্ষার্থী কিংবা সরকারী আমলা কিংবা যেকেউ আমাদের কাছে সমান সেবা পেয়েছে এবং দায়িত্বের ক্ষেত্রে অবহেলা কখনো করেনি আমাদের টিম। আমরা দেখতেই পাচ্ছি আইটি এর বর্তমান এবং ভবিষ্যত এর বিপুল সম্ভাবনা। এক্ষেত্রে একটি জিনিসই ভাবি, দক্ষতার উন্নয়নে এই ছাত্র কিংবা বেকারদের এত অনীহা কেন? অধিকাংশ ক্ষেত্রে আমাদের শিক্ষার্থীদের ব্যাকগ্রাউন্ড জিজ্ঞাসা করা হয়না, কারণ আইটি সেক্টরে আপনি ১৬/১৮ বছর হলে বেসিক কম্পিউটার জানলেই একটা পর্যায়ে অনবরত সঠিক পরিশ্রমে সফল হতে পারেন। আমাদের এখানে পুলিশ সুপারের একজন ওয়াইফ ক্লাশ করছেন এবং কোর্সে ভাল করছেন, অথচ আমরা আসলে জানতামও না। এমনিভাবে ম্যাজিস্ট্রেট কোর্স সম্পন্ন হওয়ার দিন অনেক যুবা জানলেন এতদিন তারা ম্যাজিস্ট্রেটের সাথে একি প্লাটফর্মে ক্লাশ করেছে। বর্তমানে রাংগামাটি এবং বান্দরবান থেকেও আদিবাসীদের অনেক সাড়া পাওয়া যাচ্ছে নকরেক আইটিতে যা আমরা খুবই ইতিবাচক দিক বলি। বর্তমানে আইটি বিপ্লবের সাথে নিজেদের শিক্ষা এবং দক্ষতা বৃদ্ধির ক্ষেত্রে যুবাদের বিপ্লব ঘটাতে হবে। শেখার আগ্রহ এবং নিজেকে প্রতিনিয়ত নতুন নতুন পরিবর্তনের সাথে মানিয়ে নিতে না পারলে টিকে থাকা অসম্ভব হয়ে পড়বে। বর্তমান শিক্ষার উপর ভর করে তুমি খুব ভালো রেজাল্ট করলে, বিদেশের শিক্ষার সাথে একটা কথা যেটা যায়, তুমি সেই স্কুলিং-ই করলে এবং এ থেকে গ্রাজুয়েট হয়ে ফিরলে কিন্তু প্রকৃত শিক্ষা তোমাকে নিজেকে ছাপিয়ে সৃষ্টির কথাই বলবে। সৃষ্টি সুখের উল্লাসে মাতার পূর্বশর্তই হচ্ছে নিজেকে জানো এবং স্কুলিং নয় এডুকেশনটা ধারণ করতে হবে। প্রতিযোগী নয়, সহযোগী হয়ে এগিয়ে যাও, কারণ যে হার মানেনা তাকেতো এই জীবনে কখনোই সাধ্য নেই কারোর হারিয়ে দেবার। আইটি সেক্টরের বিপ্লবে যুবাদের সম্পৃক্ততা বৃদ্ধি পাক, এবং দক্ষ আইটি উদ্যোগক্তা বাড়ুক। যুবাদের কিংবা আগ্রহী ১৬-৬১ বয়সীদের আইটিতে ক্যারিয়ার বিষয়ক সকল প্রশ্নের উত্তর দিতে প্রস্তুত থাকবে আমার টিম নকরেক আইটি ইন্সটিটিউট ফার্মগেট ওয়ানগালায় সারাদিনব্যাপী। (গারোদের প্রধান উৎসব) । শুভকামনা। বিঃ দ্রঃ আজ থেকে দ্য গারোজ ২৪ এ যোগ হচ্ছে 'স্ট্যাটাস অব দ্য ডে'! ৩ টি বেস্ট স্ট্যাটাস বাছাই করে ছাপা হবে প্রতিদিন!

প্রিন্সিপাল অফিসার পদে পদোন্নতি অর্জন করলেন অর্পণ যেত্রা

দ্য গারোজ ২৪ নিউজ ডেস্ক, সোনালী ব্যাংক লিমিটেড এ কর্মরত অর্পণ যেত্রা পদোন্নতি অর্জন করে প্রিন্সিপাল অফিসার হলেন। সোনালী ব্যাংকের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন স্বাক্ষরিত ৯ সেপ্টেম্বর এর এক প্রজ্ঞাপনে অর্পণ যেত্রাকে বিষয় টি জানান হয়েছে। উল্লেখ্য, ইতঃপূর্বে তিনি সিনিয়র অফিসার (আইটি) হিসেবে নেত্রকোনা রিজিওনাল অফিসে কর্মরত ছিলেন। প্রজ্ঞাপনে উল্লেখিত পদে আগামী ১৫ দিনের মধ্যে যেত্রাকে উন্নীত পদে যোগ দানের জন্য বলা হয়েছে। চৌকস প্রযুক্তিবিদ হিসেবে অর্পণ যেত্রার ব্যাপক সুনাম রয়েছে। সামপ্রতিককালে তিনি ময়মনসিংহ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইটি বিষয়ে কম্পিউটার সাইন্স এন্ড ম্যাটেম্যাটিক্স ডিপার্টমেন্ট থেকে Post Graduate Diploma in ICT(PGD-in-ICT) সম্পন্ন করেছেন। তিনি প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ C++, Java, C#, Database with advance feature( Mysql), Data Science (R programming, SPSS), Multimedia, Data Structure and Algorithm, Web programming (HTML, PHP, javascript, php, css) এ প্রশিক্ষিত। বিস্তারিত আসছে...

আরও ২ টি নতুন এপ্স এবং ১০ টি অথোরিটিটিভ ওয়েব সাইট চালু করল আচিক জুমাং প্রোডাকশন্স

নিজস্ব প্রতিবেদক, আচিক জুমাং প্রোডাকশন্স আরও ২ টি নতুন এপ্স এবং ১০ টি অথোরিটিটিভ ওয়েব সাইট চালু করেছে। এর আগে তাঁরা ২টি নিউজ ব্লগসহ ২৫টি বিষয় ভিত্তিক ব্লগ শুরু করেছিল। আচিক জুমাং প্রোডাকশান্স ২৫ টি এপ্স তৈরির একটি প্রকল্প হাতে নিয়েছে। তার মধ্যে এ বছরের শুরুতে ২ টি গুগল প্লে স্টোরে প্রকাশ করেছে। আজকে আরও ২ টি এপ্স যুক্ত হয়েছে। প্রকল্পটির লীড সফটওয়্যার ডেভেলপার জানিয়েছেন, আগামী ১ সপ্তাহের মধ্যে আরও ১৫ টি এপ্স গুগুল প্লে স্টোরে পাওয়া যাবে। ৯ টি অথোরিটেইটিভ ওয়েব সাইটগুলো গবেষণামূলক। সাইটগুলোর কাজ যদিও প্রায় শেষ তথাপি সেগুলো আমরা আরও সময় নিয়ে যাচাই করে দেখব সেখানে কোন ভুল তথ্য রয়েছে কি না। আমাদের প্রোস্ট্যাট ক্যান্সার প্রিভেনশান Micro Niche Website খুব জনপ্রিয় হয়েছে এবং অনেকে উপকৃত হচ্ছেন বলে জানিয়েছেন। এতে আমরা খুব অনুপ্রাণিত হয়েছি এবং আমরা আরও ধরণের ছোট ছোট প্রকল্প হাতে নিয়েছি যেন সেগুলো মানুষের উপকারে আসে। নির্ভরযোগ্য তথ্য উপস্থাপনই আমদের লক্ষ্য। বাজারে আসা নতুন এপ্স! Small Bathroom Design Idea, Daily Cash Rewards, এর ব্যাপক সাফল্যের পর এই দু'টি এপ্স 1200 Calories A Day Paleo Diet Meal Plan, এবং 7 Day Fat Burning Juice Diet Plan আরও সাড়া ফেলবে বলেই মনে করছেন আচিক জুমাং। এপ্সের নামগুলোতে ক্লিক করে যে কেউ তাঁদের নিজেদের এন্ড্রয়েড ফোনে ডাউনলোড করে ব্যবহার করতে পারবেন। এপ্সগুলো আগামী ৬ মাস ফ্রী দেওয়া হয়েছে! যে ৯টি Micro Niche Website চালু করা হয়েছে সেগুলো হলঃ

সাইটগুলোর ডিজাইন সম্পর্কে জানতে চাইলে নকরেক জানান, "এই কাজগুলো অত্যন্ত ব্যয়বহুল! খরচের কথা মাথায় রেখে আমরা খুব সম্ভব ডিজাইনগুলো সিম্পিল এবং চেস্ট রাখার চেষ্টা করেছি! ডিজাইন নয়, সেগুলো আমরা খুব রেস্পসিভ, ইউজার ফ্রেন্ডলি এবং ফাংশনাল করার বিষয়টি জোর দিয়েছি।" আচিক জুমাং প্রোডাকশন্স তাদের নির্মিত প্রথম এপ্স 'সেরেনজিং' ২০১৫ সালে তৈরী এবং ২০১৬ সালে রিলিজ করলেও সেটি আরও আধুনিক করার জন্য তুলে নেয়। প্রসঙ্গে লীড ডেভেলপার এবং প্রতিষ্ঠানটির কর্ণধার বাবুল ডি' নকরেক জানিয়েছেন, সেটি ওয়ার্ডপ্রেস অয়েবসাইট থেকে করার কারণে কিছু ত্রুটিযুক্ত ছিল। আমরা সেটি আধুনিকীকরনের জন্য কাজ করছি। এপ্সটি আগামী বছর মার্চ নাগাদ আবার গুগুল প্লে স্টোরে যাবে।

আইটিতেই মুক্তি

সুবীর জেভিয়ার নকরেক

আইটি সেক্টরকে একপেশে রেখে এগিয়ে যাওয়ার কোনো বিকল্প নেই। ১ মিনিট ইন্টারনেট নেই ত জীবন নাই নাই এই অবস্থা, যেন কিচ্ছু ভালো লাগেনা। যেহেতু ইন্টারনেট বিহীন জীবন এখন কল্পনাই করা যায় না, তাহলে ক্যারিয়ারটা ইন্টার্নেটভিত্তিক হলে কেমন হয়? কিন্তু --- এটা যদি শুধু ফেসবুকে খোশগল্পের জন্যই হয় তবে অনেক ভাবনার উদয় ঘটাতে হবে। আইটি সেক্টর এখন সবচেয়ে সম্ভাবনাময় সেক্টর। যারা চাকরীর জন্য হা হুতাশ করেন, তাদের এখনই উপযুক্ত সময় আইটি সেক্টরে দক্ষ হওয়ার। আমার অনেক বিদেশী ক্লায়েন্ট বলে আপনি যে কাজটা করবেন সেটাতে দক্ষ কিনা?

এ পর্যন্ত প্রায় দুইশত বিদেশী ক্লায়েন্টের সাথে কাজ করেছি, কোনো ক্লায়েন্ট কিংবা বিদেশী জিজ্ঞাসা করেনি আমি কোথায় পড়ালেখা করেছি কি পড়েছি আর কোন প্রতিষ্ঠানে শিখেছি। কর্মক্ষেত্রে আস-লেই আমার আপনার প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার কোন ভেল্যু নেই, সার্টিফিকেটেরও ভেল্যু নেই যদি ইন্টারন্যাশনালি কাজ করেন। ভেল্যু আছে আমার আপনার দক্ষতার। ইনফ্যাক্ট অনেক বিদেশীরাই বলে, If you know how to design and code, there is no value of your school and university. অর্থাৎ ডিজাইন এবং কোডিং ভালোমতো জানলে পর, স্কুল ইউনিভার্সিটি শিক্ষার দরকার নেই। বর্তমান প্রেক্ষাপটে আরো দরকার নেই। পূর্বে আমরা চরিত্র গঠনের জন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষালাভের উদ্দেশ্যে যেতাম, বিদ্যা লাভের জন্য যেতাম। এখন এমন এমন হচ্ছে যেন ছোটবেলা থেকেই বই এবং ব্যাগ দিয়ে বাচ্চাদের মেরুদন্ড বাকিয়ে জাতিকে ধ্বংস করা আর মুখস্থ করে কিভাবে একটি ভালো চাকরী লাভ করা যায়।

সত্য চরম হলেও এটাই বাস্তবতা যে, বর্তমানে আমাদের শিক্ষাব্যবস্থাটা আমাদের কর্মবাজারের ঠিক উল্টো। পররাস্ট্রবিষয়ক সাবেক রাষ্ট্রদূত ফারুক সোবহান বলেন, বর্তমানে আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থা আর কর্মবাজারের সাথে কোন যোগসূত্রতা নেই, যার জন্য অন্য দেশ থেকে দক্ষ লোক নিয়ে আসতে হয় এবং চড়ামূল্যে তাদের দক্ষতার প্রতিদান দিতে হয়।এরজন্য তিনি অভিভাবক এবং শিক্ষার্থীদেরও দায়ী করেন। কারণ শিক্ষার্থীরা বিকল্প না ভেবে শুধু চাকরী পাওয়াটাকে শিক্ষার উদ্দেশ্য মনে করে, কিন্তু শিক্ষার উদ্দেশ্যই হচ্ছে অভিনব কিছু সৃষ্টি করা।

বর্তমানে সরকারের নেতিবাচক দিক আলোচনা না করে যদি শিক্ষিত যুবরা চাকরীর পেছনে না দৌড়ে আইটিতে মন দিয়ে দক্ষতা অর্জন করে তাহলে তারাই কাজ করবে নির্মানাধীন ১২টি আইটি পার্কে। যদিনা দক্ষ হই আমরা, তবে এই নির্মানাধীন আইটি পার্কেও আবার হায়ার করে আনতে হবে দেশের বাইরের আইটি স্পেশালিস্টদের। সুতরাং প্রযুক্তির এই আশীর্বাদকে কাজে লাগিয়ে দক্ষ হহওয়াটাই এখন সবচেয়ে বেশি সময়োপযোগী, যুগোপযোগী। প্রধানমন্ত্রীর সুযোগ্য পুত্র সজীব ওয়াজেদ জয় এর কথানুসারে, "চাকরীর পেছনে না ছুটে আইটিতে মন দাও।"

নকরেক আইটি পরিবারের আনন্দভ্রমণ এবং সেন্টমার্টিন দ্বীপ দর্শন

সুবীর জেভিয়ার নকরেক

জাহাজের গেইটপাস আর টিকিট টেকনাফে পাওয়ার পর তন্ময়ের দীর্ঘশ্বাস-আহ-যাত্রা তবে স্বপ্নীল দ্বীপে আজ!

সবার কাছে যেন স্বপ্ন ছিল, স্বপ্নপূরণের সময়টা এসে গেল ২২ শে ফেব্রুয়ারী ২০১৮। নকরেক আইটি গ্রুপে ২ সপ্তাহ আগে থেকেই পোস্ট করা ছিল সেন্ট মার্টিন ভ্রমণের কথা। অনেক লম্বা ট্যুর এবং মোটামুটি খরচসাপেক্ষ বিধায় অনেকেই আগ্রহ প্রকাশ করলেও ভাগ্যবান ভাগ্যবতী ৭ জন মিলেই সাফল্যমন্ডিত সফর হলো সেন্টমার্টিনে।

সেন্টমার্টিনে পৌছার পর প্রত্যকের বাধ ভাংগা উল্লাস দেখে মনে হচ্ছিল সবাই বুঝি খুজে পেল আপন গন্তব্য এবং এতদিনের সকল স্বপ্ন বুঝি সফল হলো। এই সফরে অনেক প্রোগ্রাম ছিল, তন্মধ্যে বাইসাইকেল কম্পিটিশন, ফানুস উড়ানো, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, বার্বিকিউ পার্টি, লটারী ড্র, বীচ দৌড় প্রতিযোগিতা ইত্যাদি ছিলো সবার কাছে স্মরণ করে রাখার মত অন্যতম আয়োজন।

সমুদ্রের ঢেউয়ের তালে গারোদের ঐতিহ্যবাহী পোশাক দকমান্দা পড়ে সমুদ্র নৃত্য ছিলো সবার আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু। নকরেক আইটি এর ইউটিউব চ্যানেলে শীঘ্রই ভিডিওগুলো আপ্লোড হবে বলে জানানো হয়েছে।

সবাই নিজেদেরকে অনেক ভাগ্যবান এবং ভাগ্যবতী মনে করেছে যে তাদের জীবনে এই প্রথমবার তারা স্বপ্নের দারুচিনি দ্বীপে ভ্রমণ করতে পেরেছে এবং সুস্থ সুন্দরভাবে ফিরে আসতে পেরেছে। 

দারুচিনি দ্বীপ নামক একটি হোটেলে খাওয়ার সময় বৃষ্টি জুই রিছিল ত আবেগে আপ্লুত হয়ে বলেছে, ইস, এত সুন্দর সুন্দর হরেক রকমের টেস্টি মাছ খেয়ে ত সবাই সুন্দর আর স্বাস্থবতী হওয়া শুরু করছে। তিনি আরো বলেন, এক মাস আগে থেকেই ঘুমালেও আমি শুধু দারুচিনি মুভির গানটা শুনতাম এবং সেই কবেই আমার মন দারুচিনি দ্বীপ এসে গিয়েছিল, আজ যেন স্বপ্ন সত্যি হলো। বুঝলাম স্বপ্নও সত্যি হয়।

তার এমন উচ্ছাস দেখে সবাই অনেক আনন্দিত এবং সবাই নিজ নিজ সহভাগিতা তুলে ধরতে কুন্ঠাবোধ করেনি। এদিকে মুনমুন নকরেক সিল্ক্রিং সমুদ্র বলুন, বীচ বলুন কিংবা সেন্টমার্টীনের উল্লেখযোগ্য লোকেশন যেখানেই যায় সেখানেই তার আনন্দের বাধ ভাংগা উচ্ছাসটা ফেসবুকে লাইভে এসে সহভাগিতা না করলে যেন জমেইনা। তিনি নিজেই বলে ফেললেন, আমি ফ্যাতা ফ্যাতা অর্থাৎ বারংবার সহভাগিতা করছি মনের অজান্তেই। এর আগেও মুন কক্সবাজার গিয়েছিল কিন্তু তার কাছে সেন্টমার্টিন যেন পুরোটাই অন্য এক অদ্ভুত সুন্দর বাংলাদেশ যা কিনা কেউ ভিডিও কিংবা ছবিতে দেখে অনুধাবন করতে পারবেনা, না দেখলে ভ্রমণপিপাসু মানুষের সারাজীবনের মিস হবে বলেও মনে করেন মুন। 

সবাই নিজেকে সময় দেওয়া অপেক্ষা সবার সাথে আনন্দ সহভাগিতাতেই বেশি ব্যস্ত ছিলেন। আশ্চর্যজনক হলেও সত্য যে, ভ্রমণে অংশগ্রহণকারী অনেকেই পরস্পরকে মুখোমুখি চিনতেন না, শুধু ইন্টার্নেটে পরিচয় কিন্তু ভ্রমণ সময়কালে কারো যেন বিন্দুমাত্র মনে হয়নি কেউ কাউকে আগে থেকে চিনেনা, এ যেন আগে থেকেই চিরচেনা বন্ধন, এ বন্ধন নকরেক আইটি পরিবারের বন্ধন।

তন্ময় রিছিলের বাঁধভাঙ্গা আনন্দ বিশ্লেষণের বুঝি সাধ্যি নেই কারো, তন্ময় বিচে গিয়ে ক্ষনিকের মধ্যে ঝাপাঝাপি করছে সমুদ্রে, ডিগবাজি দিচ্ছে, আবার ক্ষণিকেই কোথা থেকে যেন অনেকগুলো ডাব নিয়ে এসে সবাইকে বিলি করছে আর আবার ক্ষনিকেই হারিয়ে যাচ্ছিলো বিশাল জলরাশির মাঝে। তার ভাষ্যমতে, আমি নকরেক আইটি পরিবারের প্রতি এতটাই কৃতজ্ঞ যে আমার স্বপ্নপূরণ হয়েছে যে তা আমি এখনো ঘোরের মধ্যে আছি। কিভাবে যে সময়গুলো পার হয়ে গিয়েছে আমি টেরই পেলাম না, ফিরে এসেও ঘুমের মধ্যে শুধু সেন্টমার্টিন এর সৌন্দর্য ভাসে আর ঢেউগুলো ডাকে, এসো তন্ময় আবার এসো। তন্ময় কথাগুলো একনাগারে বলে যাচ্ছিলো মূল্যায়নের সময়।

মজার ঘটনা যেমন বেশি বেশি ঘটেছে তার মধ্যে একটা চিন্তার বিষয় ছিল এই যে, বিপদের আচ করলে বিপদ যেন ঝেকে বসে। ভ্রমণকালে নকরেক আইটি এর প্রতিষ্ঠাতা সুবীর নকরেক বলেছিলেন ঠাট্টাচ্ছলে, কেউ যদি হারিয়ে যায়, তবে নিম্নোক্ত গানটি গাইলেই তাকে সবাই মিলে খুজে পাবে, মন চায় মন চায় যেখানে চোখ যায় সেখানে যাবো হারিয়ে।

সেন্টমার্টিনে পৌছে বিচ সাইকেল প্রতিযোগিতার জন্য পরেরদিন সকালে বলা হলো, ছেড়াদ্বীপে বাইসাইকেল কম্পিটিশন হবে। প্রতিযোগিতা সঞ্চালনার দায়িত্ব ছিল জ্যোতি রিছিল মনা এর। ক্যামেরায় চার্জ ছিলনা বিধায় নকরেক আইটির মেন্টর সবাইকে বললেন আস্তে আস্তে সবাই বিচে একসাথে চলে যান। সমস্যা হলো সবাই সাইকেল চালাতে পারলেও মনা সাইকেল কম চালাতে পারতো বিধায় সে সাইকেল নিয়ে আস্তে আস্তে হেটে রওনা দেওয়াতে সবাই যে বিচে গেল সে সে বীচে না গিয়ে বিপদজনক একটা বিচে চলে গিয়েছিল, যেখানে আগে থেকেই সতর্ক করে রাখা লাল নিশানা দিয়ে। ১০ মিনিট পর ক্যামেরা চার্জ দিয়ে যখন নকরেক আইটির সিইও দেখে বীচে সবাই আছে কিন্তু মনা নেই, সে সবাইকে জিজ্ঞেস করতেই বলে যে মনা আস্তে আস্তে আসবে বলেছে। মেন্টর সুস্থ মাথায় চিন্তা করে কোন সময় ব্যয় না করে বললো, এভাবে তাকে তোমরা একা রেখে এসে ভুল করেছ। বিন্দুমাত্র দেরী না করে মেন্টর নিজে যখন মনাকে ফোন দিল তখন মনা বলে সে ছেড়াদ্বীপের দিকে একা এগুচ্ছে!

মেন্টর অবাক হয়ে তন্ময়কে বললো, তন্ময় তুমি লাল নিশানা রাখা বিচে যাও আমি অন্য বিচে যাচ্ছি। এদিকে তন্ময় এবং মেন্টর দুজন সব জায়গায় খুজলো যেন মনার দেখা মিলছেই না। মনা ফোন করে বারংবার বলছে আমি বিচেই আছি নিরাপদেই আছি। এদিকে সাইক্লিং করে মেন্টরের প্রায় পুরো সেন্টমার্টিন ঘুরা শেষ। মনার ফোন--তন্ময়কে দেখেছি। এরপর শুরু হলো মনাকে নিয়ে কিছুক্ষণ আনন্দকরা, এ যেন হারানো মেষ খুজে পাওয়ার অনাবিল আনন্দ। 

মনা এক সময় বলেই ফেললো, মেন্টর সাহেব আপনিতো বলেছেন কেউ হারিয়ে গেলেও ওই গানটি গায়লেই আপনি খুজে পাবেন, আমি মনে মনে গাইছিলাম মন চায় মন, যেখানে চোখ যায় সেখানে যাবো হারিয়ে। 

মেন্টর সাহেব হাসি ধরে রাখতে না পেরে বলেই দিলেন, এইটাকি আমাকে পরীক্ষার জন্য ছিলো কতটুকু আন্তরিক নকরেক আইটি পরিবার? মনা কিছুক্ষণ নীরব থেকেই বললো, না সত্যি আমি রাস্তা হারিয়ে ফেলেছিলাম 🙂 তবে আন্তরিকতা নিয়ে আমার সন্দেহ নেই।

মনাকে খুজে পাওয়া গেল, এবার শুরু হলো বিচ সাইকেল কম্পিটিশন। মনাই বিচারক, মনা সবাইকে ডিরেকশন দিলেন, তন্ময় শেষ মাথায় থাকবে সেখান থেকে রাউন্ড দিয়ে এসে আর এক মাথা থেকে যে ঘুরে এসে নির্দ্বিষ্ট দাগ পার করতে পারবে সেই চ্যাম্পিয়ন হবে। জ্যোতি মনা শুরু করলেন, 5-4-3-2-1 Go.

বীচে সাইকেল চালানো ছিল নার্স সেংমির কাছে একটি স্বপ্নের মত। তার যেন সকালটা ছিল স্বপ্নপূরণের সকাল। কম্পিটিশনে সবচেয়ে সরব দেখা গেল সেংমিকেই। সাইকেল কম্পিটিশন শুরু হলো এবং অনেক নাটকয়ীতার মাধ্যমে চ্যাম্পিয়ন হলো বৃষ্টি জুই রিছিল। ভিডীও নকরেক আইটি এর ইউটিউব চ্যানেলে পাওয়া যাবে।ইউটিউবে গিয়ে Nokrek IT লিখে সার্চ দিলেই সবাই দেখতে পাবে। সেংমি কম্পিটিশনে দ্বিতীয় হওয়াতেও তার আনন্দের কোন কমতি নেই, সেংমি পুরো ট্যুরজুড়ে যেন নিজেকে অন্যভাবে আবিষ্কার করলো। অনেক বিচক্ষণ এবং সাহসী নারী সেংমি হাউই যার মধ্যে নেতৃত্ব বর্তমান। তার আনন্দ যেন ভেতরে ভেতরে বিশালাকার ধারণ করছিল কিন্তু কাউকে যেন বুঝতে না দিই এমন ভাব। কিন্তু শেষতক আর যেন এ আনন্দ ভেতরে রাখা গেলনা, বিচে গিয়ে প্রথম দৌড়াদৌড়ি যেন শুরু হলো সেংমিকে দিয়েই। এক লাফেই যেন তার সমুদ্র জয়। অন্যদিকে প্রথমে দকমান্দা পড়ে নাচের জন্য অনীহা হলেও ভিডিওতে দেখা গেল সবচেয়ে বেশি আনন্দ যেন সেংমিই করেছে।

সেংমি বলেন, আসলে কেউ সাহস করে এমন ভালো উদ্যাগ নেয়না, নকরেক আইটি এই উদ্যোগ না নিলে আমি হয়তো কখনো আসতে পারতাম কিনা জানিনা। আমি চিটাগং চার বছর থেকেছি, কক্সবাজার বারংবার এসেছি কিন্তু সেন্টমার্টিন আমার কাছের স্বপ্নের মতই ছিল যা আজ বাস্তবায়ন হয়েছে এবং এর জন্য নকরেক আইটির প্রতি কৃতজ্ঞতা এবং ধন্যবাদ জানাই।  তিনি আরো বলেন, সমুদ্র অনেক বিশাল, এ বিশালতা সান্নিধ্য পেলে মন এমনিতেই ভালো হয়ে যায়, বার বার সমুদ্রের কাছে আসতে চাই।

এদিকে যেখানেই তন্ময়ের ক্যামেরা সেখানেই সেংমির দৌড়াদৌড়ি দেখে তন্ময় বলে ফেললো সেংমি আণ্টি ভালোই দৌড়াতে পারে।  এদিকে বুঝা গেল একজন সবার মত প্রকাশ্যে আনন্দ করবেনা কিন্তু আনন্দের ছাড়ও দিবেনা। কিন্তু সমুদ্রের কাছে এসে আসলে নিজের আনন্দ কি আর বেশিক্ষণ গোপনে রাখা যায়? না-আনন্দ গোপন করে রাখতে পারলেন না হেলেনা চিসিমও। প্রথমদিন ভেবেছিল সমুদ্রে নামবোনা কিন্তু সমুদ্রের স্পর্শ কি আর মিস করা যায়। শুরু হলো সমুদ্রে গিয়ে তার নাচের মুদ্রা দেখানো। সমুদ্রে তিনি আপন মনে নাচ শুরু করলেন, এ যেন এক অন্য অনুভূতি যা ভাষায় প্রকাশ করা যাচ্ছেনা।

হেলেনা চিসিম বলেন, আমি অনেক অনেক খুশি এবং অন্য এক সুন্দর বাংলাদেশ দেখলাম। কখনো ভুলবনা আর সুযোগ পেলে আবারো আসতে চাই।

রাতে চললো বাহারী রকমের আচার কেনা আর খাওয়া দাওয়া। বৃষ্টী তেতুলের আচার কিনে ত মুন বলের আচার কিনে, অন্যদিকে জ্যোতি মনি মুক্তা কিনে আর হেলেনা এবং তন্ময় শুটকি কিনায় ব্যস্ত। সিইও সাহেব তাদের সবার আনন্দময় মুহুর্তগুলো ক্যামেরাবন্দি করাতেই যেন আনন্দ খুজে পান। অন্যদিকে সেংমি স্টাইলিশ টুপিগুলো পরখ করে চুপি চুপি দেখলেও সিইও সাহেবের ক্যামেরা ফাকি দিতে পারেননি।

সবাই এত পরিমাণ শুটকি নিল তাও আবার একটি দোকান থেকে, তারাই যেন সেই দোকানের শুটকি এর ব্র্যান্ড এম্বাসাডর। এমন পোজ দিয়ে তারা আবার দোকানদারের সাথে ছবিও তুলে নিল। মুনের দরকষাকষি আর জুই এর প্রত্যকটা শুটকির দাম জিজ্ঞাসার উত্তর দিতে গিয়ে দোকানদার মামা হাসি দিয়ে বলেই ফেললেন, মামা হাস্তে কইন যে, মুই ত সামাল দিবা পায়নাযে!!! এদিকে সেংমি ত চিটাগং দীর্ঘদিন ছিলো তাই চাটগায় ভাষা ত পারেই, সেও মসকরা করা শুরু করে দিল, মামা দাম ত বেশি বেশি কয়েন না যে!!!

রাতে যখন সবাইকে বলা হলো, সবার জন্য ফানুস উড়ানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে। সবার মনে আলোর ঝলকানি বয়ে গেলো কিছুক্ষনের জন্য। রাত তখন প্রায় ১১টা। সেন্টমার্টীনের আকাশে উড়বে হরেক রকমের ফানুস। সেটা ভাবতেই জুই বলে ফেললো, ওয়াও আজ ফানুসের সাথে সব স্ট্রেস আর ক্লান্তি উড়িয়ে দেবো। সেংমি বলে ফেললো, ফানুসের সাথে আমরাও উড়ে যাবো। তন্ময় বলল, হেনাকে লাল ফানুসটার সাথে আর সবুজ ফানুসটার সাথে মনাকে উড়ালে কেমন হয়

ফানুস উড়ানোটা বীচে বুঝি সবচেয়ে কঠিন কাজ, যা উড়াতে গিয়ে সবার যেন করুণ দশা। এত বাতাসের মধ্যে ম্যাচের আগুন জ্বালানোটাই ছিল যেন চ্যালেঞ্জিং। শেষতক বীচে অনেক যুবক আরাম করে বসে থেকে যারা সমুদ্রের বিশালতা উপভোগ করছিলেন তারা এগিয়ে এলেন তাদের লাইটার নিয়ে এবং সেন্টমার্টিনের আকাশে দেখা গেল হরেক রকমের ফানুস। ভিডিও আসছে নকরেক আইটি ইউটিউব চ্যানেলে।

সবার জন্য সেন্টমার্টিন সফর প্রথমবার হলেও নকরেক আইটি এর সিইও এর জন্য ছিলো এই সফরটি দ্বিতীয়বারের মত সেন্টমার্টিন সফর। তিনি বলেন আমি যখন ২০১৪ সালে সেন্টমার্টিন সফর করেছিলাম যেমনটি আমার আবেগ ছিলো সেন্টমার্টিনের জন্য আমার আবেগ প্রায় একই, বারংবার আমি সুযোগ পেলেই এখানে এসে কিছু সময় কাটাতে চাই। তবে তিনি এও বলেন, আগে এত মানুষ আর দোকানপাট ছিলনা, এখন অনেক যত্রতত্র দোকানপাট আর কিছুটা ময়লা আবর্জনা লক্ষণীয় হচ্ছে। তিনি ট্যুরের আগে সবাইকে সতর্ক করেন এই বলে যে, সবাই রিফ্রেশমেন্ট ট্যুরে যাচ্ছেন, দয়া করে কেউ যেন কোন চিপস বা বিস্কুটের প্যাকেট সমুদ্রে কিংবা বিচে ফেলে না আসেন এবং সমুদ্রের নুড়ি পাথরগুলোও কেউ যেন নিয়ে না আসেন। পরিবেশ যেন নোংরা না হয় এ ব্যাপারে সবার প্রতি তিনি দৃষ্টি আরোপ করেন এবং সবার সুন্দর এবং সফল ট্যুর কামনা করে বলেন, নকরেক আইটি একটি পরিবার, এ পরিবারে যারা যুক্ত হয় তাদের সফলতা আনয়ন করাই নকরেক আইটির সর্বোত্তম প্রচেষ্টা।

তিনি মূল্যায়নের সময় এও বলেন নকরেক আইটি আপনাদের জন্য কি সেবা দিবে আপনাদের চিন্তা করতে হবেনা, শুধু নকরেক আইটি পরিবারের প্রত্যাশা এই যে, নকরেক আইটি পরিবার আপনার প্রতি যেমন ডেডিকেটেড ঠিক তেমনি আপনিও ডেডিকেটেড থাকুন তাহলে সফলতা নিশ্চিত। তিনি সবাইকে বলেন আপনারা নকরেক আইটি পরিবারকে বিশ্বাস করে অনেকেই গ্রাফিক্স ডিজাইনে এডমিশন নিয়েছিলেন। ক্লাশ চলাকালীন সময়ে অনেকেই অনলাইনে সফল হচ্ছেন এবং সফলতার মুখ দেখে অনেকেই বিশ্বাস করে যে ইংলিশ ফর লাইফ (জীবনের জন্য ইংরেজী শিক্ষা) কোর্সটা করছেন তা বাংলাদেশের অন্য কোন প্রতিষ্ঠান এমন সার্ভিস দিতে পারবেনা যা ইতিমধ্যে আপনারা সাইফুরস, মেন্টরস এবং অন্যান্য প্রতিষ্ঠানে প্রত্যক্ষ করে ফিরে এসেছেন। আপনাদেরকে নকরেক আইটি কথা দেওয়াতে বিশ্বাসী নয়, বরং প্রমাণ দেওয়াতে বিশ্বাসী বলে তিনি তার কথা ব্যক্ত করেন এবং সবার জন্য সুখবর দেন এই বলে যে, মার্চ থেকে নকরেক আইটি ইন্সটিটিউট-এ প্রফেশনাল গ্রাফিক্স ডিজাইন এবং ফ্রিল্যান্সিং, ওয়েব ডিজাইন এবং ফ্রিল্যান্সিং, ইংলিশ ফর লাইফ এই তিনটি ইন্টারন্যাশনাল কোর্সের পাশাপাশি চালু করতে যাচ্ছে সফটওয়ার টেস্টিং এবং ফ্রিল্যান্সিং এবং ডিজিটাল মার্কেটিং এবং ফ্রিল্যান্সিং।

নকরেক আইটি এর মেন্টর আরো যুক্ত করে বলেন, ইন্টারভিত্তিক কাজ বাংলাদেশে পুরোদম্ভর শুরু ২০১০ সাল থেকে হলেও গারো আদিবাসীদের ইন্টারন্যশনালী এই প্রফেশনাল সেক্টরে স্কিল্ড ২০/৩০ জন প্রফেশনালও খুজে পাওয়া যেতনা ২০১৭ সাল পর্যন্ত যা কিনা ২০১৭-২০১৮ সালের অর্ধবছরে মাত্র ৬ মাসেই অর্ধশত আদিবাসী জনগোষ্ঠীকে এই প্রফেশনাল সেক্টরে নকরেক আইটি সংযুক্ত করতে পেরেছে এবং তারমধ্যে সিংহভাগই গারো জনগোষ্ঠী। ইতিমধ্যে কোর্স শেষ করার আগেই অনেকেই অনলাইনে কাজ শুরু করছে নকরেক আইটি থেকে কোর্স করে। এও উল্লেখ্য যে, অনেকেই যারা বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে গিয়ে কাজ শিখে হতাশ হয়ে এসেছে তাদের জন্যও নির্ভরযোগ্য প্রতিষ্ঠান এই নকরেক আইটি ইন্সটিটিউট। ১০ জনেরো অধিক স্টুডেন্ট আছে যারা বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কাজ শিখে তেমন কিছু পারেনি এখন তারা দক্ষ হয়ে কাজ করছে নকরেক আইটি পরিবারে জয়েন করার পর। নকরেক আইটি পরিবারে ঘরে বসে কাজ শিখছে অনেক ব্যাংকার, সরকারী চাকরীজীবী, এনজিও কর্মী, ছাত্র/ছাত্রী, গৃহিণী এবং তারাই যারা জীবনকে অন্যের অধীনে রেখে অন্যের উপর নির্ভর করতে চায়না, নিজে থেকে কিছুর প্রয়াস চালায়। নকরেক আইটিতে কোর্সের পর থাকছে ইন্টার্নশীপ এর সুযোগ এবং যোগ্যতম ব্যক্তিরা ইতিমধ্যে চাকরীর অফার পাচ্ছেন নকরেক আইটি পরিবারে টীম হিসেবে কাজের জন্য। ইন্টার্নশীপ এবং জব অফার নকরেক আইটি পেইজে গেলেই দেখা যাবে রিকুয়ার্মেন্টসহ। 

নকরেক আইটি পরিবার সম্পর্কে ছাত্র/ছাত্রীদের মন্তব্য এবং আপডেট পেতে নকরেক আইটি এর অফিসিয়াল পেইজে যুক্ত হয়ে আপডেটেড থাকুন। (www.facebook.com/NokrekIT) এবং ওয়েবসাইটঃ www.nokrekit.subirnokrek.net

নকরেক আইটি পরিবারের স্টুডেন্টদের সফলতার গল্প শুনতে নিচে ক্লিক করুন।

  1. https://www.youtube.com/watch?v=9whgQqKqJJI 2. https://www.youtube.com/watch?v=eib69eyERjw 3. https://www.youtube.com/watch?v=Y8DW35Oyp5Q 4. https://www.youtube.com/watch?v=JqbNWbeJxL0 5. https://www.youtube.com/watch?v=qRWErsQQPCI 

নকরেক আইটি এর কোন কোর্সে রেজিস্ট্রেশন করতে চাইলে নিচের লিংকে ক্লিক করুনঃ https://goo.gl/PoGXnq

নকরেক আইটি পরিবারে জয়েন করার পূর্ব শর্তই হচ্ছে মনস্থর করতে হবে। মূল কথাই হচ্ছে- মনস্থির করুন, দক্ষ হোন, নিজেই নিজের বস হোন।

ফ্রিল্যান্সিংঃ রাজকীয় জীবন

সুবীর জেভিয়ার নকরেক

একজন ফ্রিল্যান্সার হচ্ছে বিভিন্ন পেশার মুক্ত পেশাজীবী মানুষ। সে শুধু ইন্টারনেটভিত্তিক কাজ করেই পেশাদার ফ্রিল্যান্সার বলে গণ্য হবে তা নয়।

Do you want to be a FREELANCER? Want to earn your LIVING from ANYWHERE IN THE WORLD?

If YES, just click here today and TAKE ACTION! We will help you start making money in just 7 Days!

একজন গ্রাফিক্স ডিজাইনার হতে পারে একজন ফ্রিল্যান্সার। তবে তাকে পরিচয় দেওয়ার সময় বলতে হবে ফ্রিল্যান্স গ্রাফিক্স ডিজাইনার। শুধু ফ্রিল্যান্সার বললে একটু ভুল ব্যাখ্যা দেওয়া হয়। অন্তত যখন নিজের পেশাকে বলা হয় তখন শুধু ফ্রিল্যান্সার না বলে বলতে পারেন, ফ্রিল্যান্স গ্রাফিক্স ডিজাইনার, ফ্রিল্যান্স ফটোগ্রাফার, ফ্রিল্যান্স ওয়েব ডিজাইনার/ডেভেলপার, ফ্রিল্যান্স রাইটার, ফ্রিল্যান্স জার্নালিস্ট, ফ্রিল্যান্স এপস ডেভেলপার, ফ্রিল্যান্স সিংগার ইত্যাদি।

অর্থাৎ যখন আমরা শুধু নিজেকে ফ্রিল্যান্সার হিসেবে পরিচয় দিই তখন কেউ প্রশ্ন করার স্কোপ পেয়ে যায় কিসের ফ্রিল্যান্সার! এক্ষেত্রে বিভিন্ন সেক্টরে নিজেরদের পরিচয় দেওয়ার সময় আপনি নিজে যে বিষয়ের উপর স্কিল সেট করে ফ্রিল্যান্স করে জীবিকা নির্বাহ করছেন কিংবা আপনার ক্যারিয়ারে উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত দেখিয়ে যাচ্ছেন, সেই প্রফেশনাল স্কিলটাকে জড়িয়ে বলতে পারেন। এক্ষেত্রে একজন ফটোগ্রাফার যদি কোন প্রতিষ্ঠানের আন্ডারে কাজ না করে বিভিন্ন সময় ভিন্ন ভিন্ন ক্লায়েন্টের বা প্রতিষ্ঠানের কাজ নিজের পছন্দ অনুযায়ী করেন, তাকে ফ্রিল্যান্স ফটোগ্রাফার বলতে পারি।

Welcome to our The Garos24 Amazon Associate Store! You can order as many products you want. Please click on any product and it will navigate you to our main store where you can find unlimited products to choose from. We appreciate your business with us. Please feel free to ask any questions on LIVE CHAT window option if you have any queries. You can also shoot an email at: thedailygaros24@gmail.com

Click on any Baby Product to find thousand of products that your Baby loves!

ফ্রিল্যান্সারঃ ফ্রিল্যান্সার হিসেবে নিজেদের পরিচয় দিতে অনেকে পূর্বে কুন্ঠাবোধ করতো। বিশেষত অনেকে যারা ঘরে বসে ইন্টারনেটে কাজ করতো তারা নিজদের আয় এর কথা জানাতে কিংবা নিজদের বিষয়ে বলতে দ্বিধাবোধ করতো দেখেছি। এর কারণ তারা নিজেদের পেশাগত জীবন নিয়েই সঠিক এবং সম্যক ধারণা লাভ করেনি কিংবা এখনো অনেকেই আছে যারা এই জ্ঞান নিয়ে ফ্রিল্যান্সিং জীবন শুরু করেনি।

ফ্রিল্যান্সাররা রাজার নীতি ফলো করে এবং রাজার মত জীবন যাপন করে।

স্বপ্নের শুরুটা সহজ হলেও স্বপ্নবাস্তবায়ন সবসময়ই কঠিন। এক্ষেত্রে প্রথমাবস্থায় দক্ষতা বৃদ্ধির সময় একজন ফ্রিল্যান্সার মানবেতর জীবন যাপন করতে পারে, তবে সময়ের সাথে সাথে তার দক্ষতা বৃদ্ধি পায় এবং দক্ষতা বৃদ্ধির সাথে সাথে সে লোকাল থেকে শুরু করে আন্তর্জাতিকভাবে নিজেকে অন্যের কাছে প্রকাশ করতে সমর্থ হয় এবং বিশ্বের কাছে তার সেবা পৌছে যায় এবং একসময় সে নিজেই ব্রান্ড হয়ে যায়।

ফ্রিল্যান্সাররা সৎ উপায়ে জীবন যাপন করে। এখানে অন্যের ক্ষতি করে কিংবা ঘুষ খেয়ে কিংবা ঠকবাজি করে কাজ করার কিংবা কাজ পাওয়ার উপায় নেই। টিকে থাকতে হলে অবশ্যই কোন না কোন বিষয়ে একদম দক্ষ হতে হয়। এই দক্ষতা কোনরকম চালিয়ে দেবার মত হলে অচিরেই ঝরে পড়তে হয়। কারণ সারাবিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে কাজ করতে গেলে অবশ্যই Survival of the Fittest নীতি পালন করতে হয়।

Click on any Beauty Product to find thousand of products that you love!

একজন সাধারণ চাকরীজীবী এবং রকস্টার ফ্রিল্যান্সারের পার্থক্যঃ একজন সাধারণ চাকরীজীবী মুলত মুখস্থ বিদ্যা কিংবা সাধারণ পড়াশুনা শেষ করেই কোন চাকরীতে জয়েন করছে কিংবা মামা চাচার গুণে চাকরী করছে। এটা হতে পারে প্রাইভেট কিংবা সরকারী যে কোন চাকরী। অধিকংশ ক্ষেত্রেই যারা চাকরীরত তাদের মধ্যে দেখা যাবে তারা টেক্সট বই কিংবা বিভিন্ন গাইডবই মুখস্থ করেই বিভিন্ন প্রাতিষ্ঠানিক চাকরী করছেন।

Click on any Digital Camera to find thousands of Cameras that you love!

কিন্তু একজন ফ্রিল্যান্সার এর টিকে থাকার জন্য প্রফেশনাল স্কিলটা যেমন দরকার তেমনি কমুনিকেশন স্কিলটাও জরুরী। একজন উচ্চশিক্ষিত ফ্রিল্যান্সার চাইলেই কিন্তু সাধারণ চাকরীজীবী তার দৈনন্দিন কর্ম যেভাবে সম্পাদন করছে তা করতে পারে, কিন্তু ভিন্ন ভিন্ন সেক্টরে যে ভিন্নভিন্ন দক্ষতা দিয়ে সারাবিশ্বের মধ্য থেকে কাজ আদায় করে টিকে থাকতে হয়, সেটা চাকরীজীবীর কাছে সাগরে ভেসে যাওয়ার মত হবে যদিনা এক্সট্রা কোন দক্ষতা অর্জন করা যায়!

ফ্রিল্যান্সাররা কোনো প্রতিষ্ঠানের কতৃত্ব বা বাধাধরা নিয়মের ধার ধারেন না, তারা রাজার নীতি ফলো করেন, ইচ্ছে হলে কাজটা করবে ইচ্ছা না হলে করবেনা। অর্থাৎ একজন ফ্রিল্যান্সারের যদি কাজটা ভালো না লাগে তবে কারো সাধ্য নেই তাকে করানোর, কারণ সে স্বাধীনচেতা এবং স্বাধীনচেতা বলেই গধবাধা নিয়মে যে চাকরী সবাই গোলামীর মত খেঁটে যাচ্ছে, সে বিপরীত কিন্তু সঠিক পথে হাটছে। জীবনটা যেমন স্বাধীবভাবে বাচার স্বপ্ন দেখে সবাই, সেই স্বপ্নটা পূরণ করে ফ্রিল্যান্সাররাই।

Do you want to be a FREELANCER? Want to earn your LIVING from ANYWHERE IN THE WORLD? Do you want to join Nokrek-IT and build your career as a BRAND FREELANCER?

If YES, just click here today and TAKE ACTION! We will help you start making money in just 7 Days!

Click on any iPhone to find thousand of iPhones that you love!

ফ্রিল্যান্সারদের দুঃখ এবং আনন্দঃ দক্ষতা অর্জন না করেই দেশের অনেক ফ্রিল্যান্সার আছে যারা কাজ ২ একটা করে অলস সময় কাটান। এক্ষেত্রে যে সময় কাজ কাজ করছে সে সময়টাই কিন্তু তার দক্ষতা বৃদ্ধিতে মনোযোগ দেওয়ার। আগেই বলেছি, কোনরকম কাজ চালিয়ে যাওয়ার মত দক্ষতা থাকলেই টিকে থাকা যায় না। অবশ্যই অত্যধিক দক্ষতাসম্পন্ন হয়েই বিশ্বের ময়দানে পা দিতে হবে। কেন না যেখানে একজন চাকরীজীবী দেশের ৪ লক্ষ এপ্লিকেন্টের মধ্যে প্রতিযোগিতা করছে কোনো দক্ষতা ছাড়াই শুধু মুখস্থ বিদ্যা দিয়েই, সেখানে একজন ফ্রিল্যান্সারকে আন্তর্জাতিকভাবে নিজেকে গড়ার জন্য অবশ্যই প্রফেশনাল স্কিল এবং কমুনিকেশন বা সফট স্কিলে দক্ষ হতে হবে। কারণ প্রতিযোগিতায় আর তখন শুধু নিজ দেশের ৭ লক্ষাধিক ফ্রিল্যান্সার নয়, প্রতিযোগিতায় থাকে ৭ কোটিরও অধিক ফ্রিল্যান্সার। এক্ষেত্রে নতুন ফ্রিল্যান্সাররা ঘাবড়ে যেতে পারে! তবে আশার কথা হচ্ছে, যদি প্রকৃত অর্থে দক্ষতা অর্জিত হয়েই থাকে, তবে তার সুমতি নিশ্চিত। সেটা হতে পারে অল্প সময়ের মধ্যে কিংবা কিছুটা দীর্ঘ সময়ের পর। তবে অবশ্যই ধৈর্য্যশীলতাকে এ সেক্টরে টিকে থাকার অন্যতম হাতিয়ার ভাবতে হবে।

সুখঃ ফ্রিল্যান্সারদের দুঃখটা মূলত প্রথমাবস্থায় থাকে। সেটা অনেকের শেখার ৬ মাস পর্যন্ত আবার অনেকের ১ বছর পর্যন্ত। বাকি জীবনটা ফ্রিল্যান্সারদের জন্য যেন সুখ আর সুখে ভরা। ইচ্ছা করলেই কারো নিয়মের তোয়াক্কা না করে পাহাড় বন কিংবা দেশ বিদেশে ঘুরেও নিজের ইচ্ছাস্বাধীনভাবে কাজ করতে পারছে। ইচ্ছা করলে এক সপ্তাহের আয় দিয়ে দু'মাস কাজ না করেও ঘুরে ফিরে নিশ্চিন্তে আনন্দ করতে পারছে।

Click on any book to find thousands of books that you love!

Click on any Hoodie to find thousand of hoodies that you love!

চাকরীর অপর নাম সকল চাকরীজীবীই যেমন চাকর বলে নিজেদেরই আখ্যায়িত করে থাকেন, এক্ষেত্রে ফ্রিল্যান্সাররা নিজেরা একটা সময় নিজেদেরকে নিজেই নিজের বস এবং নিজ সাম্রাজ্যের রাজা বলে আখ্যায়িত করতে পারেন।

ফ্রিল্যান্সারদের দৃষ্টিভংগিঃ অনেক ফ্রিল্যান্সাররা অনেক সময় ব্যাংকে গিয়ে নিজেদের ফ্রিল্যান্সার বলে পরিচয় দেয়। আংশিক ভুল, আরে ভাই এখানে একজন ব্যাংকার সারাজীবন মুখস্থ বিদ্যায় বইয়ের অংক ঝাঝড়া করে অন্যের টাকা গুনার জন্য আপনার টাকা গুনার জন্য বসে আছে তাকে আপনি ফ্রিল্যান্সার বললে কি চিনে নেবে! তার পরিধি তো টাকা গুনার মাঝে সীমিত। আপনি বিশ্বের কাছ থেকে কিভাবে টাকা আনছেন বা কি পেশায় নিয়োজিত তা তার মাথাব্যাথা নয়। উন্নত দেশে দক্ষতার মাধ্যমে অর্থ উপার্জন অতি পুরাতন এবং বিশ্বনন্দিত পেশা হয়ে এলেও এদেশের অনেকেই এখনো এ ব্যাপারে সঠিক ধারণা রাখে না এবং ইন্টারনেটে উপার্জন যে সম্ভব তা তারা বিশ্বাস করতেও পারে না। এর কারণও আছে। পূর্বে বিভিন্ন ক্লিকবাজির মাধ্যমে অনেক টাকা পাওয়ার লোভ দেখিয়ে অনেক প্রতিষ্ঠান কিংবা এমএলএ কোম্পানি টাকা আত্নসাৎ করেছিল, জনগণেরই বা কি দোষ?

Click on any Art, Craft & Sewing Product to find thousand of products that you love!

বিগত কয়েকবছর যাবত সরকারী প্রচারণা কিংবা উদ্যোগ না নিলে আপনি এখনো নিজেকে ফ্রিল্যান্সার বলে পরিচয় দিতেন কিনা সন্দেহ। তবে এক্ষেত্রে সরকারী উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাতেই হয়।

বলছিলাম দৃষ্টিভংগির কথা, একজন ফ্রিল্যান্সার যখন ব্যাংকে কিংবা সমাজে নিজেকে ফ্রিল্যান্সার হিসেবে পরিচয় দিলে বুঝতে না পারলে নিজের আত্নসন্মানে বাধে তাহলে আপনি যে বিশ্বনন্দিত পেশায় নিযুক্ত আছেন সেটা বলুন, বলুন ফ্রিল্যান্স গ্রাফিক্স ডিজাইনার অথবা ফ্রিল্যান্স ওয়েব ডেভেলপার বা যার ক্ষেত্রে যেমন প্রযোজ্য। তারপরে যদি না বুঝতে পারে তার জন্য এই ডিজিটাল যুগে আপনার কষ্ট পাওয়ার চেয়ে মুচকি হেসে বলুন আপনি ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের  একটা একজন সহযোদ্ধা।

Click on any Appliance to find thousand of Appliances that you love!

ফ্রিল্যান্সারদের অবদানঃ বস্তুত একজন ফ্রিল্যান্সার লোকাল কিংবা ইন্টারন্যাশনাল দু'টোর যেকোন একটিতে নিজেকে ব্যাপৃত রেখেও কাজ চালিয়ে যেতে পারেন এবং নিজ নিজ ক্ষেত্রে নিজেকে ফ্রিল্যান্সার দাবী করতে পারেন। এখানে ফোকাস করা হচ্ছে আন্তর্জাতিকভাবে কাজ করাটাকে।

ইন্টারনেটভিত্তিক কাজ করে আয় করা বিভিন্ন ফ্রিল্যান্সারদের কথা বলছি। ফ্রিল্যান্সারদের অবদান নিয়ে দেশের দশের মানুষ বলতে গেলে জানেই না। বাংলাদেশের বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের মধ্যে পোশাক রপ্তানি দ্বিতীয় এবং সরকার ধরে নিয়েছে বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনে আইসিটি সেক্টর পোশাক রপ্তানিকে ছাড়িয়ে যাবে।

Click on any Product to find thousand of your Best Health & Personal Care products that you love!

এখন মূল কথায়ই হচ্ছে এই আইসিটি সেক্টরে যে বৈদেশিক মুদ্রা অর্জিত হচ্ছে এবং দেশ ও জনগণ যে সেবা পাচ্ছে এটা কিভাবে আসছে? এটা বাংলাদেশের বিভিন্ন প্রান্তে ঘরে বসে কাজ করা অক্লান্ত পরিশ্রম করা ৭ লক্ষাধিক ফ্রিল্যান্সারদের অবদান। একজন ফ্রিল্যান্সার দেশ ও জাতির গর্ব বলতে কি কষ্ট হচ্ছে? বুক ফুলিয়ে সবার বলা উচিত একজন ফ্রিল্যান্সার এবং আইটি উদ্যোগক্তা দেশ ও জাতির গর্ব। যারা বেশী ভালো কাজ করে তারা আমাদের সমাজে রীতিমত একটু পরেই মূল্যায়িত হয়। এক্ষেত্রে যারা ফ্রিল্যান্সার তারা ঘরে বসেই বিশ্বকে সেবা দিচ্ছে এবং দেশকে যে অর্থনৈতিক চাংগা করছে তা অবশ্যই ভালো এবং এ ভালোর স্বীকৃতি সরকার এখনো দিতে পারেনি। আগেই বলেছি বেশি ভালোর স্বীকৃতি একটু পরেই পাওয়া যায়।

Click on any Electronic Product to find thousand of products that you love!

জনগণের সত্য-ভ্রান্ত ধারণাঃ জনগণ ভাবে ঘরে বসে ইন্টারনেটে যুবরা অমুক তমুক দেখে নষ্ট হচ্ছে। আবার অনেক জনগণ ভাবে ইন্টারনেটে কাজ করলেই লাখ লাখ ডলার।

ইন্টারনেটে অবশ্যই ভালো মন্দ বিবেচনার বিষয় আছে। তবে ইন্টারনেট যখন সারা বাংলাদেশের ৭ লক্ষাধিক মানুষের জীবন পরিবর্তনে ভূমিকা রাখছে। অন্যদেশের কথা নাইবা বলি। সেখানে এটা আশীর্বাদস্বরুপ। আর হ্যা ইন্টারনেটে অনেকেই লাখ লাখ ডলার ইনকাম করে ঠিকই কিন্তু এ ইনকামের জন্য নিজেকে সে পর্যায়ের যোগ্য করে গড়ে তুলতে হবে। সে যোগ্যতা ১ দিনে ১ বছরে হয়ে উঠে না। সে যোগ্যতা কারো ৫ বছরে কারোবা ১০ বছরেও হতে পারে। এমনো ধারণা যে, ইন্টারনেট কাজ করা মানেই রাত জেগে কাজ করা। এমন অনেক দক্ষ ফ্রিল্যান্সার আছেন যে তাদের মনেই নেই তারা শেষ কবে রাত জেগে কাজ করেছে। এখানে প্রথমাবস্থায় সুদক্ষ হওয়ার জন্য অবশ্যই একজনকে দিনরাত সমান করেই সুদক্ষ হতে হবে যদি সময় সংক্ষেপ থাকে। যদি তাড়াহুড়ো না থাকে তবে রাত জাগার দরকার প্রথমাবস্থায় থাকলেও আসতে ধীরে সেটা কমে আসবে এবং এক সময় রাতে কাজ আদায় করে দিনের বেলাতেই নিজের সময় অনুসারে কাজ ক্লায়েন্টকে জমা দিতে পাবেন। আর যদি রাতে কাজ করতেই হয় তবে তাতো আরো ভালো বিষয়। যখন চাকরীজীবীরা দিনে কাজের চাপে অতিষ্ট হয়ে যাচ্ছে সেক্ষেত্রে আপনি নিশ্চিন্তে ঘুরতে পারছেন এবং রাত হলে তাও আরামে ঘরে বসেই কাজ করছেন।

Click on any Laptop to find thousands of Laptops that you love!

এক্ষেত্রে বিশ্বের অন্যতম ধনী ব্যক্তি ওয়ারেন বাফেট এর কথা বলা-ই যায়ঃ

তুমি যদি অন্যের ঘুমানোর সময় একটু কষ্ট করে রাত জেগে কাজই না করলে তবে ত তোমাকে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত কাজ কাজ করেই মরতে হবে। জীবনটাকে উপভোগ করতে হয়। আর উপভোগের আর এক নাম ফ্রিল্যান্সিং।

কোন সাংঘর্ষিক কথা পেয়ে থাকলে দুঃখিত। তবে বস্তুতপক্ষ্যে সবাই রাজার মত জীবনই গড়তে চায়, সবাই এমন জীবনই চায় যেখানে কারো কতৃত্ব থাকবে না, যেখানে কারো হুকুম জারী থাকবে না, যেখানে থাকবে অফুরন্ত স্বাধীনতা, সাথে নিজে বলতে পারবো, এই আমি স্বধীন এবং সুখী। আমি বলতে পারব, আমি বাংলাদেশ এবং পৃথিবীর মানুষের সেবা দেই।

  দ্য গারোজ24 আমাজন এসোসিয়েট-এ আপনাকে স্বাগতম! আপনার পছন্দের যে কোন পণ্য কিনুন নির্ভরতার সাথে। প্রয়োজনে চ্যাট অপশনে সরাসরি কথা বলুন।

Do you want to start a Freelancing Career? Want to make money from anywhere in the world? Want to earn right from home? Make your living simply working ONLINE? Want to FIRE YOUR BOSS? Please click here for training!

Learn Selenium Webdriver with Java & Earn from Home Anywhere in the World from Babul Nokrek on Vimeo.

Learn Selenium Webdriver with Java & Earn from Home Anywhere in the World is LIFE CHANGING Course Designed, Developed & Instructed by Babul D' Nokrek.

Babul D' Nokrek is an IT Instructor at AccentTech (please visit http://www.accenttech.us) in the United States of America.

Please contact on Skype: meghruddur

Email: softwaretestengineer007@gmail.com

To enroll any course, please follow the link: https://www.fiverr.com/babulnokrek

Our Website: https://www.freelancingteacher.com Our News Blog: https://www.thegaros24.com Our Blog: https://www.softwaretestingtutor.com

 

Do you want to be a FREELANCER? Want to earn your LIVING from ANYWHERE IN THE WORLD?

If YES, just click here today and TAKE ACTION! We will help you start making money in just 7 Days!        

Freelance Business Consultation-2018!

Hello World! Welcome to Freelance Business Consultation-2018! The Session is FREE for Bangladesh! Other than Bangladesh Registration Fee is $10 Only! Why will you listen to me? Because ... Clients pay $50 per hour to listen to my lectures!

Please click here to register now!

Presenter: Babul D' Nokrek Date: 5th January 2018 Time: 9:00am-11:00am (Eastern Time) 8:00pm-10:00pm (Bangladesh time)

Freelancing Business Consultation-01 from Babul Nokrek on Vimeo.

Hello World!

Welcome to Cyber Sloutions-71!

Cyber Sloutions-71 is a Sister Concern of A'chik Jumang Productions that provides TRAINING & CONSULTING SERVICES on FREELANCING BUSINESS from Anywhere in the world!

We have a LIVE SESSION Every FRIDAY
ON
"FREELANCE BUSINESS CONSULTATION "

Presenter: Babul D' Nokrek

Date: 5 January
Time: 9:00am-11:00am (NEW YORK Time)
BD Time: 8:00pm-10:00pm (Bangladeshi Time)

The Session is FREE for Bangladesh!
Please register adding us on Skype: meghruddur

Other than Bangladesh needs $10 Registration FEES!

Please register here: https://www.fiverr.com/babulnokrek/teach-you-front-end-web-development

Our Website: https://www.freelancingteacher.com
News Blog: https://www.thegaros24.com
Our Blog: http://www.softwaretestingtutor.com

Learn T-shirt & Hoodie Design for $10 in just 2 hours: Make Your Living from Anywhere in the World

Click on any Digital Camera to find thousands of Cameras that you love!

Dear Learners,

Welcome to T-Shirt, Hoodie and Mug Design Course! I am very much excited and honored to be your instructor for this very course. This course will be conducted via SKYPE and WebEx.

The course is FREE for the Garos from Bangladesh, Bhutan & India! It's also FREE for all the people of Madhupur Upazella, Bangladesh!

Learn Selenium Webdriver with Java & Earn from Home Anywhere in the World from Babul Nokrek on Vimeo.

Learn Selenium Webdriver with Java & Earn from Home Anywhere in the World is LIFE CHANGING Course Designed, Developed & Instructed by Babul D' Nokrek.

Babul D' Nokrek is an IT Instructor at AccentTech (please visit http://www.accenttech.us) in the United States of America.

Please contact: https://www.fiverr.com/babulnokrek

[পুনশ্চঃ না জেনে বাংলাদেশী কেউ এই ওয়েব সাইট থেকে কোন প্রোডাক্ট ক্রয় করবেন না প্লিজ! সব সময় কথা বলে নিন। যোগাযোগ স্কাইপঃ meghruddur] [easy-pricing-table id="1008"]



This course is 90% OFF now! It was $99 course! Right now just $10! click here to join the course!

Click on any Digital Camera to find thousands of Cameras that you love!

How to Design & Sell your T-shirts & Hoodies in Bangla: Latest Class for Bangla Speaking Students

T-shirt & Hoodie Design from Babul Nokrek on Vimeo.

Password will be provided for PAID Students!

Please watch the following DEMO content video before you join or sign up with us!

T-shirt, Hoodie, Mug & iPhone Cover Design Course from Babul Nokrek on Vimeo.

My skype address: meghruddur Skype email: softwaretestengineer007@gmail.com To join WebEx Class please click here You can watch the same video on Youtube too! Please add me on your skype so that I can give you clear instructions!

Video Tutorial - 01: How to Design?

T-shirt & Hoodie Design from Babul Nokrek on Vimeo.

PASSWORD: Will be sent to your INBOX!

Video Tutorial - 02: How to Sell your Designs in a Webstore Online?

T-shirt&HoodieDesignStore from Babul Nokrek on Vimeo.

PASSWORD: Will be sent to your INBOX if you are PAID students! Please watch the video very carefully and attend the class as per schedule with your instructor. The video requires PASSWORD and it has already sent to your inbox.

Teespring Tee Shirt Design from Babul Nokrek on Vimeo.

Next workshop:

To register, please click here and pay $10!

Click on any Digital Camera to find thousands of Cameras that you love!

2-hour long online workshop on T-shirt, Hoodie, customized Mug, Personalized Phone Cover Design! Course: Online via WebEx, Skype Medium of Instruction: English Instructor: Babul D' Nokrek Date: Every Saturday Time: 8:00 pm - 10:00 pm (Eastern time, New York Time) Participants will learn to Design and Marketing online, will be able to sell them and make extra money from home! Participants will have OWN Online T-store after completing the course! FAQs: 1) How long is the duration of the course? - 2 hours 2) Can I really learn in just 2 hours? - 100%! I'll make it SUPER EASY! 3) How much can I earn after completing the course? - Depends. If you take action, you can earn $500 - $5,000 per month! 4) Will you support even after the course? - Sure! But I'll charge $10 per hour! 5) How can I contact you? - Facebook. - Email: softwaretestengineer007@gmail.com 6) How many students can join at a time? - 200 students!

Click on any Digital Camera to find thousands of Cameras that you love!

জাতীয় ও আন্তর্জাতিক রাজনীতি

আমাদের গ্রাম

আজ মানুষ গড়ার কারিগর, রাজনীতিবিদ পিউ ফিলোমিনার জম্মদিন

Nokrek IT

সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

ফ্রীল্যান্সিং

ফ্রিল্যান্সিং-আল্টিমেট আইটি উদ্যোগক্তা এবং গারোদের বিশাল সম্ভাবনা

সুবীর জেভিয়ার নকরেক সি ই ও, নকরেক-আইটি, বাংলাদেশ ফ্রিল্যান্সিং-আল্টিমেট আইটি উদ্যোগক্তা এবং গারোদের বিশাল সম্ভাবনা। আপনাকেই বলছি— হ্যা আপনাকেই বলছি- আপনি মনস্থির করুন, যা করতে চাচ্ছেন তা করেই এর শেষ দেখবেন এই দৃঢ় মনোবল রাখুন। ইদানীং যুবরা প্রযুক্তিগত উন্নয়নে নিজেদের সম্পৃক্ত করছে। যুবদের অনুরোধে আমার আজকের এই আইটি বিষয়ক বিশদ…

আমাদের গ্রাম

অনূর্ধ্ব-১৫ সাফ ফুটবলে বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন গারো আদিবাসী মেয়ে

ক্রীড়া প্রতিবেদক, ঢাকা থেকে অনূর্ধ্ব-১৫ সাফ ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপ টুর্নামেন্টে বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন কলসিন্দুরের গারো আদিবাসী মেয়ে মারিয়া মান্দা (১৪)। ইতোঃমধ্যেই ক্যাপ্টেন হিসেবে তাঁর নাম ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)। মারিয়া মান্দা (১৪) সংবাদ সম্মেলনেও যোগ দিয়েছেন। ইংল্যান্ড থেকে সরাসরি অনলাইনে ফ্রী আইটি কোর্স করতে চান? নিচের ব্যানারে ক্লিক করে…

বাংলাদেশ

ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয় মন্ত্রী'র একান্ত সচিব হিসেবে দায়িত্ব পেলেন সেবাষ্টিন রেমা

দ্য গারোজ ২৪ নিউজ ডেস্ক, ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার এর  একান্ত সচিব হিসেবে দায়িত্ব পেলেন সেবাষ্টিন রেমা। গত ১৬ জানুয়ারীর এক প্রজ্ঞাপণে এই দায়িত্ব দেয়া হয়। সেবাস্টিন রেমা গত ১৭ জানুয়ারী ২০১৮ তারিখেই তাঁর পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় ছেড়ে ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ে যোগ দিয়েছেন বলে ঢাকা থেকে…

ক্যাম্পাস

গুগল চ্যালেঞ্জ ডেভেলপার স্কলারশীপ ২০১৮ অর্জন করলেন অভিজিৎ রায় কাব্য এবং বাবুল ডি' নকরেক

দোলন জেফিরাজ কুবি Google Developer Challenge Scholarship 2018 অর্জন করলেন অভিজিৎ রায় কাব্য এবং বাবুল ডি' নকরেক। সারা বিশ্বের লক্ষ লক্ষ আবেদনকারীদের মধ্যে গুগল চ্যালেঞ্জ ডেভেলপার স্কলারশীপ ২০১৮ অর্জণে উচ্ছসিত এই দুই বাংলাদেশী তরুণ ফেইসবুক স্ট্যাটাসের মাধ্যমে জানিয়েছেন, "যে স্বপ্ন দেখতাম, তা সত্যি হয়েছে!"   অভিজিত এবং বাবুল আইটি জগতে আরও অনেক…

বাংলাদেশ

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক হিসেবে পদোন্নতি পেলেন জন কেনেডি জাম্বিল

দোলন জেফিরাজ কুবি জন কেনেডি জাম্বিল অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক হিসেবে পদোন্নতি পেলেন। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রশাসন ক্যাডারে যে কয়েকজন চৌকস বিসিএস কর্মকর্তা রয়েছেন, তাঁদের মধ্যে অন্যতম একজন তিনি। খুব শীঘ্রই তিনি তাঁর বর্তমান কর্মস্থলে যোগ দিবেন বলে জানা গেছে। তিনি আনন্দ মোহন বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ থেকে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর ডিগ্রী অর্জন…

Uncategorized

বাংলাদেশে সাফল্যের অনেক গল্প তৈরী করে চলেছে নকরেক - আইটি

আইটি প্রতিবেদক, ঢাকা থেকে বাংলাদেশে শিক্ষিত বেকার এবং হতাশ তরুণদের মধ্যে আশার আলো জ্বালিয়ে একের পর এক সাফল্যের গল্প তৈরী করে চলেছে নকরেক-আইটি। শুধু শহরে নয় ফ্রীল্যান্সিং ক্যারিয়ারকে মফঃস্বল এবং গ্রাম পর্যায়ে নিয়ে গেছে এই নতুন আইটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। এই প্রতিষ্ঠানের কর্ণধার সুবীর জেভিয়ার নকরেক জানান, নকরেক আইটি শুরু হয়েছিল…

বাংলাদেশ

বাঁশি আর গানের বুলবুলঃ সায়ন মাংসাং একটি ভালোবাসার নাম

এক আজ সায়ন মাংসাং এর একটা ইন্টারিভিউ পড়ছিলাম The New Age পত্রিকায়। পড়তে পড়তে চোখ ভিজে এল। উপরের দিকে তাকিয়ে সে জল রুখতে চাইলাম প্রাণপণ। পারলাম না! আনন্দের এই জল পৃথিবীর মাটি স্পর্শ করল। সায়নের ইন্টারিভিউ এর এক কোণে লেখা, " With a ray of hope, one of his uncles…

Fire Your Boss

ফ্রীল্যান্সিং ক্যারিয়ার বদলে দেয় জীবন

বাবুল ডি' নকরেক কাছে এবং দূরের সকল বন্ধু এবং স্বজন, সবাইকে আসছে শুভ বড়দিন ও নববর্ষের শুভেচ্ছা। সবার জন্য নতুন বছর বয়ে আনুক অনাবিল সুখ, শান্তি ও সমৃদ্ধি। Want to be a freelancer? Click here and Sign Up FREE! ফ্রীল্যান্সিং ক্যারিয়ার নিয়ে লেখার কথা কখনও চিন্তা করি নি। যদিও নিজেও…

অর্থনীতি

Learn & Earn with Fiverr from Anywhere in the Wold: We train you as a Top Skilled Freelancer in just 1-10 hours training

Do you want to make money from home living anywhere in the world? If your answer is YES, join us today! Joining is free! Just learn a new skill and start your freelancing career today! To start right now, please click here! How to join Fiverr? Just click on the…

অর্থনীতি

Freelancing Career in just 2 hours Training from anywhere in the world: 100% Guaranteed Program

50% Off for Merry Christmas on all Standard & Premium Courses! Admission Going on! Merry Christmas & Happy New Year 2018! ফ্রীল্যান্সিং ক্যারিয়ার গড়তে চান? পৃথিবীর যে কোন প্রান্তে বসে আয় করুন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন। Watch the promo video on a course, please! Do you want to earn…

অর্থনীতি

Shop with Amazon

দ্য গারোজ24 আমাজন এসোসিয়েট-এ আপনাকে স্বাগতম! আপনার পছন্দের যে কোন পণ্য কিনুন নির্ভরতার সাথে। প্রয়োজনে চ্যাট অপশনে সরাসরি কথা বলুন। Do you want to start a Freelancing Career? Want to make money from anywhere in the world? Want to earn right from home? Make your living simply working ONLINE? Want…

ক্যাম্পাস

নকরেক আইটির তৃতীয় আনন্দভ্রমণ আয়োজন

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নয়নাভিরাম ক্যাম্পাসে একদিন দেশের এক ঝাঁক নতুন আইটি স্প্যাশালিস্ট উড়লেন কোটি অতিথি পাখির সাথে! আইটি প্রতিবেদক, ঢাকা থেকে নকরেক আইটির তৃতীয় বারের মত তাঁদের আইটি প্রশিক্ষণার্থীদের নিয়ে আনন্দভ্রমণ আয়োজন করেছে। এবারের জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নয়নাভিরাম ক্যাম্পাসে একদিন দেশের এক ঝাঁক নতুন আইটি স্প্যাশালিস্ট ডানা মেলে উড়েছে লক্ষ-কোটি অতিথি পাখির…

Sharing is caring! Please share with friends & family if you find this website useful